সোমবার, ২০ মে, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সিলেটে চাচাকে কোপালো ভাতিজা  » «   বিশ্বনাথের মাছুম অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলেন যেভাবে…  » «   সাগরে নৌকাডুবি : অলৌকিকভাবে প্রাণে বাঁচলেন বিশ্বনাথের মাছুম  » «   সেমি-ফাইনালে চার দলে বাংলাদেশকে রাখলেন আকাশ চোপড়া, পাকিস্তানিদের উপহাস  » «   সিলেটে লোডশেডিং বন্ধে বিদ্যুৎ বিভাগকে আল্টিমেটাম  » «   ব্রিটেনে ধনীর তালিকায় এবারও সিলেটের কৃতি সন্তান ইকবাল আহমদ  » «   আজ ১৯ মে, এইদিনে বাংলা ভাষার জন্য শহীদ হয়েছিলেন ১১ জন  » «   শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে যুক্তরাজ্য যুব মহিলা লীগের দোয়া ও আলোচনা সভা  » «   মেধাবীদের জন্য চালু হচ্ছে ‘বিল্ড আমেরিকা ভিসা’  » «   ভূমধ্যসাগরে নিখোঁজ সিলেটের সাব্বিরের সন্ধানে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা  » «  

ওসমানীনগরে মামা শশুরের লালসার শিকার বিধবা নারী !

ওসমানীনগর প্রতিনিধি:
সিলেটের ওসমানীনগরে মামা শশুরের লালসার শিকার হয়েছেন তিন সন্তানের জননী এক বিধবা নারী (৩৮)। গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলার গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের গ্রামতলা গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। এঘটনায় পুলিশ ধর্ষক সফজ্জুল হককে (৩৮) গ্রেফতার করে শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। সে একই উপজেলার তাজপুর ইউনিয়নের ভাড়েরা গ্রামের আকলুছ মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে নির্যাতিত নারী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ও ফর্ণোগ্রাফি আইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগসূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৩ বছর পূর্বে স্বামী হারিয়ে এক ছেলে ও দুই মেয়েকে নিয়ে অসহায় জীবন যাপন করে আসছেন নির্যাতিত বিধবা ওই নারী। প্রায় ২ বছর পূর্বে জায়গা সংক্রান্ত একটি মামলার কাজে আসামী দূঃসম্পর্কের মামা শশুর সফজ্জুলকে নিয়ে সিলেটে যান। ওইদিন শহরের একটি হোটেলে রাত্রি যাপন করে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তাকে ধর্ষণ করে আসামী সফজ্জুল। একই সাথে ধর্ষণের ঘটনা মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় ভিডিও ধারণ করে রাখে।

পরবর্তীতে ধারণকৃত ভিডিও অনলাইনে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে বিভিন্ন সময়ে ৪০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার দুপুরে ভিডিও অনলাইনে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে জোর পূর্বক তাকে ধর্ষণ করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই গৌতুম সরকার বলেন, পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী সফজ্জুল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।

এদিকে সাম্প্রতিক সময়ে ওসমানীনগরে ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলেছে। গত ১ মাসে ওই বিধবা ওই নারী ছাড়াও ২ কিশোরী ও ১ শিশু কন্যা ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এছাড়া চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে একজন মাদ্রাসা অধ্যক্ষ, ১জন ব্যবসায়ী, ১জন বৃদ্ধ ও ১ কিশোর পরিকল্পিত হত্যার শিকার হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিক এসব ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন করে জড়িতদের গ্রেফতার করে প্রশংসিত হয়েছে ওসমানীনগর থানা পুলিশ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!