শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সিলেটি বিলালের মুখে বর্ণনা: ছোট নৌকায় দ্বিগুণ যাত্রী তুলে ভাসিয়ে দেয় সাগরে  » «   সিলেটের অলস গ্যাস কুপ থেকে গ্যাস উত্তোলনের আবেদন যুবলীগ সভাপতির  » «   গোলাপগঞ্জে বৃদ্ধকে বাস থেকে ‘ধাক্কা দিয়ে ফেলে’ হত্যা করলো হেলপার  » «   ওসমানীনগরে থানা পুলিশের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল সম্পন্ন  » «   লন্ডনের ওভাল ক্রিকেট স্টেডিয়াম থাকবে সিলেটিদের দখলে  » «   রাজনগরে মনু নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধে ভাঙ্গন, বন্যার আশঙ্কা  » «   বালাগঞ্জে আদালতের রায় উপেক্ষা করে জায়গা নিয়ে সংঘর্ষ, আহত-৯  » «   সংস্কারের অভাবে বিশ্বনাথ বাইপাস সড়কের বেহাল অবস্থা : রাস্তা নয় যেন পুকুর  » «   শমশেরনগর-বিমানবন্দর সড়কে ড্রেনেজ ধ্বসে গর্ত, জনদুর্ভোগ চরমে  » «   মৌলভীবাজারে বন্যায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, তলিয়ে গেছে দেড় হাজার একর আউশ ক্ষেত  » «  

দারিদ্রতা রুখতে পারেনি ওসমানীনগরের জাকিরের মেধাকে

আনোয়ার হোসেন আনা:
অভাবে জর্জরিত পরিবারের সন্তান ওসমানীনগরের গোয়ালাাজার আদর্শ উচ্চ ব্যিালয়ের ছাত্র জাকির মিয়া। তার পরিবার চলে অসুস্থ বাবার তিন চাকার রিকশা ভ্যান চালানোর আয়ে। কিন্তু অভাব নামক দানব দমাতে পারেনি অদম্য জাকিরকে। বাবা-মা কেউ শিক্ষিত না হলেও সংসারের অভাব দূর করার স্বপ্নে বিভোর জাকির তার পরিবারের একমাত্র আলোর ঝলকানি। সব প্রতিবন্ধকতাকে পাশ কাটিয়ে চলতি এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে সে উত্তীর্ণ হয়েছে। তার এই কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলে পিতা-মাতা, শিক্ষকবৃন্দ এবং সহপাঠীরাও আনন্দিত।

বাবা-মায়ের সাথে ওসমানীনগরের তেরহাতি গ্রামের একটি কলোনিতে বসবাস করে জাকির। ৪ভাই বোনের মধ্যে জাকির সবার বড়। নেত্রকোনার মদন উপজেলার মাকনা গ্রামের বাসিন্দা জাকিরের পিতা মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান এখলাছ মিয়া ঋণগ্রস্থ হয়ে ১৪-১৫ বছর পূর্বে ওসমানীনগরে এসে রিকশা ভ্যান চালানোর কাজ শুরু করেন। এর কিছু দিন পর বাড়ি থেকে পরিবারের সবাইকে নিয়ে আসেন এখানে। সংসারে অভাব থাকা সত্ত্বেও অক্ষর জ্ঞানহীন পিতা-মাতা ছেলেকে কাজে না দিয়ে বিদ্যালয়ে পাঠান। জাকির প্রথম থেকেই লেখাপড়ায় মনযোগি। যার কারণে স্ব-চেষ্টায় পিএসপি পরীক্ষায় এ গ্রেডে পাশ করে গোয়ালাবাজার আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয়। বিদ্যালয়ে পাঠদান কালে তার মনযোগ দেখে শিক্ষকরা অনুপ্রেরণা দিতে থাকেন। এতে সে লেখাপড়ায় দিন দিন এগিয়ে যেতে থাকে। যার ফলে সে জেএসপি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে সক্ষম হয়। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি এসএসসি পরীক্ষায়ও সে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। এমন ফলাফল প্রত্যাশাও করেছিলেন বিদ্যালয়ের শিক্ষকমন্ডলীসহ তার শুভাকাংখিরা।

জাকিরের স্বপ্ন ভবিষ্যতে সে বুয়েটে ভর্তি হয়ে ইঞ্জিনীয়ারিং বিষয়ে লেখাপড়া করে পরিবারের সকল অভাব দূর করে দেয়া। কিন্তু তার অভাব সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে দিবে কি না সে জানে না। তবুও সে এব্যাপারে আত্মপ্রত্যয়ী।

জাকিরের এমন কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলে খুশি হয়েছেন তার বাবা-মা, শিক্ষক, সহপাঠী ও তার শুভাকাঙ্খিরা। এমনকি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা স্বপন কুমার চক্রবর্ত্তী তার ফলাফলে খুশি হয়ে স্ব-শরীরে তার আবাসস্থলে উপস্থিত হয়ে তাকে অভিনন্দন জানান। তাকে অনুপ্রেরণা যোগাতে তার হাতে তুলে দেন উপহার। এমনকি এইচএসসি পরীক্ষায় ভাল ফলাফল করার প্রত্যাশা নিয়ে আগামী দিন গুলোতে তাকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানেরও আশ্বাস দেন তাকে।

মেধাবী জাকির সুরমা নিউজকে জানায়, ঋণগ্রস্থ হয়ে আমার বাবা এলাকা ছেড়ে এসেছিলেন। বাবা রিকশা ভ্যান চালিয়ে আমাদের পরিবার চালান। তা দেখে আমার খুব কষ্ট হয়। বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষকদের সার্বিক সহযোগিতা বিশেষ করে আনোয়ার হোসেন স্যার এবং স্যারের স্ত্রীর অনুপ্রেরণা আমাকে লেখাপড়ায় এগিয়ে যেতে সহযোগিতা করেছে। এছাড়াও অনেকে আমাকে সাহায্য সহযোগিতা করেছেন। এজন্য সকল শিক্ষক মহোদয়সহ সকলের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। জীবনে আমি একজন ইঞ্জিনিয়ার হয়ে আমার পরিবারের সকল অভাব দূর করতে চাই। এজন্য সকলের কাছে দোয়া প্রত্যাশা করছি।

গোয়ালাবাজার আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবুল লেইছ বলেন, জাকির খুব ভাল একজন ছাত্র। তার পারিবারিক আর্থিক দুরবস্থার কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে তাকে সব ধরণের সুযোগ সুবিধা প্রদান করেছি। তার মেধা শক্তি দিয়ে পরিবারের অভাব দুর করতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস রয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!