সোমবার, ২০ মে, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সিলেটে চাচাকে কোপালো ভাতিজা  » «   বিশ্বনাথের মাছুম অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলেন যেভাবে…  » «   সাগরে নৌকাডুবি : অলৌকিকভাবে প্রাণে বাঁচলেন বিশ্বনাথের মাছুম  » «   সেমি-ফাইনালে চার দলে বাংলাদেশকে রাখলেন আকাশ চোপড়া, পাকিস্তানিদের উপহাস  » «   সিলেটে লোডশেডিং বন্ধে বিদ্যুৎ বিভাগকে আল্টিমেটাম  » «   ব্রিটেনে ধনীর তালিকায় এবারও সিলেটের কৃতি সন্তান ইকবাল আহমদ  » «   আজ ১৯ মে, এইদিনে বাংলা ভাষার জন্য শহীদ হয়েছিলেন ১১ জন  » «   শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে যুক্তরাজ্য যুব মহিলা লীগের দোয়া ও আলোচনা সভা  » «   মেধাবীদের জন্য চালু হচ্ছে ‘বিল্ড আমেরিকা ভিসা’  » «   ভূমধ্যসাগরে নিখোঁজ সিলেটের সাব্বিরের সন্ধানে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা  » «  

শ্রীমঙ্গলে বনের ভিতরে চুরি হচ্ছে একের পর এক গাছ

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের চাউতলী বন ভিটে সামাজিক বনায়নের গাছ রাতের আধারে কেটে নিয়ে যাচ্ছে দুর্বৃত্তরা। বনের মধ্যে পড়ে রয়েছে গাছের কাটা অংশ। এই বিষয়ে তৎপর হতে দেখা যায়নি বন বিভাগের।

সরেজমিনে সামাজিক বনায়ন ঘুরে দেখা যায়, বনের ভিতরে একটু পর পরই বড় বড় গাছের গুড়ি পড়ে আছে। কোথাও কোথাও গাছের কাটা ডালপালা। তবে চুরি হওয়া কোন গাছের গুড়িতে বন বিভাগের সিজ হেমার দেওয়ার চিহ্ন দেখা যায় নি।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক উপকার ভোগিরা বলেন, আমরা সামাজিক বনায়নের জন্য সরকারের কাছ থেকে জায়গা নিয়ে আগর গাছ লাগিয়েছি। আগর গাছের সাথে সাথি ফসল হিসেবে লেবু, পান ইত্যাদি লাগাই। আগর গাছ বড় হতে সময় লাগে এই সময়ে আমরা সাথি ফসল দিয়ে জিবিকা নির্বাহ করতে পারি। সাথি ফসলের সাতে সেগুন, মেহগনি সহ অনেক ধরনের গাছও রয়েছে। বেশ কয়েকমাস ধরে একটি সমস্যা দেখা দিয়েছে যে, প্রায়ই রাতের বেলায় চুরেরা এসে গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। এই গাছের ৬০ শতাংশ আমাদের বাকি টা সরকারের। এখন এই বিষয়ে বন বিভাগ গাছ চুরি বন্ধ করতে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। কেন নিচ্ছেন না সেটা আমরা বুঝতে পারছি না। গাছ চুরি হওয়ার পর গাছের গুরিতে সিজ হেমার লাগানোর কথা। তবে বন বিভাগের লোকেরা এই বিষয়গুলো গুরুত্ব দিচ্ছেননা। চুরদের বিরুদ্ধে কোন মামলাও করছে না।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!