সোমবার, ২০ মে, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সিলেটে চাচাকে কোপালো ভাতিজা  » «   বিশ্বনাথের মাছুম অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলেন যেভাবে…  » «   সাগরে নৌকাডুবি : অলৌকিকভাবে প্রাণে বাঁচলেন বিশ্বনাথের মাছুম  » «   সেমি-ফাইনালে চার দলে বাংলাদেশকে রাখলেন আকাশ চোপড়া, পাকিস্তানিদের উপহাস  » «   সিলেটে লোডশেডিং বন্ধে বিদ্যুৎ বিভাগকে আল্টিমেটাম  » «   ব্রিটেনে ধনীর তালিকায় এবারও সিলেটের কৃতি সন্তান ইকবাল আহমদ  » «   আজ ১৯ মে, এইদিনে বাংলা ভাষার জন্য শহীদ হয়েছিলেন ১১ জন  » «   শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে যুক্তরাজ্য যুব মহিলা লীগের দোয়া ও আলোচনা সভা  » «   মেধাবীদের জন্য চালু হচ্ছে ‘বিল্ড আমেরিকা ভিসা’  » «   ভূমধ্যসাগরে নিখোঁজ সিলেটের সাব্বিরের সন্ধানে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা  » «  

হারানো বৃদ্ধাকে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিলেন এএসআই জিয়াউর রহমান

নোহান আরেফিন নেওয়াজ,দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থেকে:
পুলিশ জনগনের বন্ধু তারই প্রতিফলন ঘটেছে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার এএসআই মো. জিয়াউর রহমানেরর কর্মকান্ডে। একটি হতদরিদ্র পরিবারের হারানো ভারসাম্যহীন বৃদ্ধা মহিলাকে নিজ পরিবারের লোকজনদের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার প্রাণপণ চেষ্টা ব্যর্থ হয়নি ওনার।

জানা যায়, মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধ মহিলা শাহানারাবেগম(৫০)গত মঙ্গলবার(১৬ এপ্রিল) বিকেলে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা সংলগ্ন ফয়জুল ইসলামের চা-স্টলের বারান্দায় আশ্রয় নেন। জড়ো সরো হয়ে অবস্থান করতে থাকেন। চা-স্টলের কত লোক আসে কত লোক যায়, কারো দিকে ভ্রক্ষেপ নেই তার। এরকম ২ রাত অতিবাহিত করেন তিনি।

অবশেষে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার এএসআই মো. জিয়াউর রহমান মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধ মহিলা শাহানারা বেগম(৫০) এর সাথে কথা বলেন। প্রচন্ত ক্ষুধার্থ দেখে তাকে আহার করান। একপর্যায়ে সুনামগঞ্জের আঞ্চলিক ভাষায় তার কথাবর্তার ধরণ বুঝে থানা এলাকায় বিভিন্ন লোকজনদের মারফতে খোঁজ নিতে থাকেন কোথায় তার পরিবার, তিনি কোন এলাকার বাসিন্দা। একপর্যায়ে তিনি সফল হন।

বৃহস্পতিবার(১৯ এপ্রিল) জানতে পারেন যে, ভারসাম্যহীন বৃদ্ধ মহিলা শাহানারা বেগম(৫০) অত্র থানা এলাকার শিমুলবাক ইউনিয়নের শিমুলবাক গ্রামের বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার দুপুরে শাহানারা বেগমকে তার বোন শিমুলবাক গ্রামের মৃত আব্দুন নুরের স্ত্রী জহর বানুর কাছে পৌছে দেন।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার এএসআই মো. জিয়াউর রহমান বলেন, পুলিশ জনগণের বন্ধু। আমি আমার দায়িত্ববোধ ও কর্তব্যবোধ থেকে কাজটি করেছি। আমি বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর একজন গর্বিত সদস্য। তাই এ কাজটি করা আমার কতর্ব্য।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমার থানা পরিবারের প্রত্যেক সদস্যই আন্তরিক। সবাই আন্তরিকতার সহিত থানা এলাকার বাসিন্দাদের জান-মালের নিরাপত্তায় নিয়োজিত। আগামী দিনেও আমার থানার প্রতিটি পুলিশ সদস্য নিজ কর্তব্য কাজে আরো নিষ্ঠা ও মানবতাবোধ থেকে কাজ করবেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!