মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হক খানের নামে সিলেটে রাস্তা নামকরণের দাবি প্রবাসীদের  » «   মেয়েকে বলেছি তোমার মা আল্লাহর কাছে, আমিই এখন তোমার মা এবং বাবা  » «   সিলেটে ধর্ষণ ও সন্তানদেরকে গুম করে ফেলার হুমকি ছাত্রলীগ নেতার  » «   ১৪দিনেও উদ্ধার হয়নি ব্রিটিশ কন্যার স্বামী, মামলা নিচ্ছে না পুলিশ  » «   যুক্তরাজ্যে দয়ামীর ইউনিয়ন এডুকেশন ফোরাম ইউকের আত্মপ্রকাশ  » «   সুনামগঞ্জে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা, আটক ৪  » «   সিলেটসহ সাত জেলায় সেনা কর্মকর্তার স্ত্রী-সন্তানসহ ১০ জনের মৃত্যু  » «   সিলেটে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত যারা  » «   নৌকার প্রার্থী আতাউরের বাড়িতে বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী পল্লব!  » «   হবিগঞ্জে প্রেমিকের সাথে অভিমান করে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা  » «  

জন্মদাতা পিতাকে মূর্খ-অন্ধ দেখিয়ে সম্পত্তি হাতিয়ে নিয়েছে তিন ছেলে

সুরমা নিউজ ডেস্ক:
জন্মদাতা বাবাকে মূর্খ-অন্ধ দেখিয়ে জাল টিপসই দিয়ে সম্পত্তি হাতিয়ে নিয়েছে তিন ছেলে। এমন অভিযোগে চট্টগ্রাম যুগ্ম জেলা জজ তৃতীয় আদালতে ছেলেদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করেন বাবা গুরা মিয়া।

এমন অবাক করা ঘটনাটি ঘটেছে হাটহাজারী উপজেলার মেখল ইউনিয়নের ইছাপুর এলাকায়। কৌশলে বাবার সম্পত্তি হাতিয়ে নেয়ার পরও বাবার ঠাঁই হলো না ওই তিন ছেলেদের বসতঘরে।

এ ঘটনায় বর্তমানে ভুক্তভোগী ছেলেদের এমন প্রতারণায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৪ সালে উপজেলার মেখল ইউনিয়নের দুলা মিয়া সারাং প্রকাশ গিয়াস চেয়ারম্যানের বাড়ির মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে গুরা মিয়ার তিন ছেলে প্রবাসী মো. আজম, মো. মাহাবুব ও হাফেজ জাহেদ কৌশলে নিজেদের বাবাকে মূর্খ-অন্ধ দেখিয়ে দলিলে জাল টিপসই দিয়ে ১৭ শতক জায়গা রেজি. দানপত্র করে নেয় এবং দ্রুত সময়ে নামজারি করে নেয়।

এর মধ্যে ২০১৫ সালে বাবাকে বসতঘর থেকে বের করে দেয় ছেলেরা। কিছুদিন আগে সম্পত্তি হাতিয়ে নেয়ার বিষয়টি বাবা জানতে পেরে আদালতে তা বাতিলের জন্য মামলা দায়ের করেন।

গুরা মিয়া বলেন, আমার তিন ছেলে আমার সঙ্গে প্রতারণা করে সম্পদ হাতিয়ে নিয়েছে। আমি কোনো দানপত্র করিনি। দানপত্রে টিপসই আমার নয়। আমি কখনও টিপসই ব্যবহার করিনি কারণ আমি স্বাক্ষর করতে জানি। ব্যাংকে আমার অ্যাকাউন্ট আছে। আমি স্বাক্ষর দিয়েই টাকা লেনদেন করি। আমি আদালতের কাছে এর সুষ্ঠু বিচার চাই এবং আমার তিন ছেলে তথা তিন প্রতারকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

প্রতারণার ঘটনাটি জানতে পেরে ও মামলার কাগজপত্র দেখে এ ব্যাপারে হাটহাজারী সহকারী কমিশনার (ভূমি) খীসা সাংবাদিকদের বলেন, নিজ ছেলেরা এমন করতে পারে বিশ্বাসই হচ্ছে না। উনি হেবানামা ঘোষণাপত্রের আদালতে যে মামলা দায়ের করেছেন তার রায় নিতে পারলে রায়ে সব খতিয়ান নিয়ম অনুযায়ী বাতিল বলে গণ্য হবে। উনার জায়গা উনি ফিরে পাবেন। এক্ষেত্রে ওই ভুক্তভোগী বাবা গুরা মিয়ার জন্য আমাদের সর্বোচ্চ সহযোগিতা থাকবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!