বুধবার, ২২ মে, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সরকারি কর্মকর্তাদের কী বলে ডাকবেন জানতে চেয়ে আবেদন  » «   মৌলভীবাজারে সংস্কারের দাবিতে সড়কে ধান রোপণ করে প্রতিবাদ  » «   ব্রিটেনে স্টুডেন্ট ভিসায় পড়তে যাওয়া ৩৪ হাজার শিক্ষার্থীর জীবন বিপন্ন  » «   সিলেটে ইষ্টিকুটুম-মধুবনকে জরিমানা, নিষিদ্ধ মোল্লা লবণ-পচা খেজুর জব্দ  » «   সিলেটে অবৈধ মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড গুড়িয়ে দিয়েছে সিসিক  » «   সিলেটে ফিজায় মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য  » «   জগন্নাথপুরে জিনের ‘গুপ্তধন’ নিয়ে তোলপাড়  » «   দেশে ফিরলেন সাগরে বেঁচে যাওয়া সিলেটের ১৩ যুবক, বিমানবন্দরে জিজ্ঞাসাবাদ  » «   গোয়ালাবাজার-খাদিমপুর রাস্তার বেহাল দশা, দেখার কেউ নেই !  » «   বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর উপজেলা আইনজীবী পরিষদের দোয়া ও ইফতার মাহফিল সম্পন্ন  » «  

বন্যপ্রাণী প্রেমী তানিয়া খান চলে গেলেন না ফেরার দেশে

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার থেকে:
না ফেরার দেশে চলে গেলেন বন্যপ্রাণী প্রেমী তানিয়া খান। তিনি ‘সেভ আওয়ার আনপ্রোটেক্টেড লাইফের’ (সোল) পরিচালক ও বন্যপ্রাণী গবেষক ছিলেন। গত বুধবার (১৩ মার্চ) হৃৎযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। জীববৈচিত্র্য রক্ষায় মৌলভীবাজারে তিনি নিজ উদ্যোগে গড়ে তোলেন সোল নামক একটি প্রতিষ্ঠান। সোলের পরিচালকও ছিলেন তিনি।
সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা শামসুল মুহিত চৌধুরী জানান, মনে হচ্ছে ঘুমন্ত অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে তানিয়া খানের। ঘরে তার কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে সকাল ১০টার দিকে বাড়ির লোকজন দরজা ভেঙে ঘরে ঢোকেন এবং সেখানে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।
শামসুল মুহিত চৌধুরী আরও জানান, প্রায় ১২ দিন আগে একটি বেসরকারি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে তানিয়া খান চারদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন। তাকে বাড়ির পাশে কালেঙ্গা কবরস্থানে সমাহিত করা হবে।
তানিয়া খান ফরেস্ট রেঞ্জ অফিসার এম মুনির আহমেদের স্ত্রী। ২০১৫ সালে তার স্বামী দুর্ঘটনায় মারা যান। স্বামীর মৃত্যুর পর তানিয়া খান বন্যপ্রাণী গবেষণার কাজে মৌলভীবাজারে স্থায়ীভাবে থেকে যান। তার স্থায়ী নিবাস ঢাকা জেলায়। তানিয়া খান তিন মেয়ে ও এক ছেলের সবাই ঢাকায় থাকেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!