বুধবার, ২২ মে, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সহীহ-শুদ্ধ কুরআন শিক্ষা দিচ্ছে দারুল কিরাত মজিদিয়া ফুলতলী ট্রাস্ট  » «   সরকারি কর্মকর্তাদের কী বলে ডাকবেন জানতে চেয়ে আবেদন  » «   মৌলভীবাজারে সংস্কারের দাবিতে সড়কে ধান রোপণ করে প্রতিবাদ  » «   ব্রিটেনে স্টুডেন্ট ভিসায় পড়তে যাওয়া ৩৪ হাজার শিক্ষার্থীর জীবন বিপন্ন  » «   সিলেটে ইষ্টিকুটুম-মধুবনকে জরিমানা, নিষিদ্ধ মোল্লা লবণ-পচা খেজুর জব্দ  » «   সিলেটে অবৈধ মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড গুড়িয়ে দিয়েছে সিসিক  » «   সিলেটে ফিজায় মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য  » «   জগন্নাথপুরে জিনের ‘গুপ্তধন’ নিয়ে তোলপাড়  » «   দেশে ফিরলেন সাগরে বেঁচে যাওয়া সিলেটের ১৩ যুবক, বিমানবন্দরে জিজ্ঞাসাবাদ  » «   গোয়ালাবাজার-খাদিমপুর রাস্তার বেহাল দশা, দেখার কেউ নেই !  » «  

সিলেটের ১২উপজেলায় ভোটের হিসাব কষছেন ১৭৩ প্রার্থী

সুরমা নিউজ:
নির্বাচন মানেই উৎসব। আর সেই উৎসবের ছোঁয়া কড়া নাড়ে চায়ের দোকান থেকে গৃহীনির মুখে। কিন্তু এবার ভোটারদের মাঝে সেই উৎসবের আমেজ নেই। রয়েছে কেবল কৌতুহল। আর এই কৌতুহল ১৮ মার্চকে ঘিরে।

৫ম উপজেলা পরিষদের দ্বিতীয় পর্যায়ে নির্বাচনে এবার ভোটাররা নিস্প্রাণ থাকলে বসে নেই প্রার্থীরা। বিজয় মুকুট ছিনিয়ে নিতে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা। জেলার ১২টি উপজেলায় জয়ের বাসনা নিয়ে ভোটারের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান (নারী-পুরুষ)পদে ১৭৩ জন প্রার্থী। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫৬, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ৭৬, নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪১ প্রচারণায় নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে নেতাকর্মী-সমর্থকদের নিয়ে।
আগে ভোটাররা ভোটের হিসাব-নিকাশ করতেন। এবার উল্টো হয়েছে। আর তা হলো প্রার্থী কষছেন ভোটের হিসাব। জেলার ১২ উপজেলায় চার পৌরসভা ও ৯৭টি ইউনিয়নে মোট ১৭ লাখ ৮০ হাজার ৭১০ ভোটারকে নিয়ে প্রার্থীদের যত চুলছেড়া বিশ্লেষণ। ভোটারের এই হিসাবের খাতায় আছেন ১০ লাখ ৮ হাজার ৯০ জন পুরুষ এবং ৮ লাখ ৮৫ হাজার ৭১০ জন নারী ভোটার। তাদের পবিত্র আমানত ভোটেই নির্বাচিত হবেন ১২ জন করে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান।
এসব উপজেলায় ৮১৬টি ভোট কেন্দ্রে ৪ হাজার ৪১৪ ভোট কক্ষে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের দিন ভোট গ্রহণের দায়িত্ব থাকবেন মোট ১৪ হাজার ৫৮ জন কর্মকর্তা। এরমধ্যে প্রিজাইডিং অফিসার ৮১৬, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ৪ হাজার ৪১৪ জন এবং ৮ হাজার ৮২৮ জন পুলিং অফিসার।
উপজেলাগুলোর মধ্যে সিলেট সদরে মোট ২ লাখ ১৯ হাজার ৩৩৫ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ১লাখ ১২ হাজার ৭১২ এবং ১ লাখ ৬ হাজার ৬২৩ জন নারী ভোটার ৯১টি কেন্দ্রে স্থায়ী-অস্থায়ী ৫৪০টি কক্ষে ভোট দেবেন। ভোট গ্রহণে নিয়োজিত থাকবেন ১ হাজার ৭২০ জন কর্মকর্তা। এরমধ্যে কেন্দ্র প্রতি একজন প্রিজাইডিং অফিসার, ৫৪৩ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও এক হাজার ৮৬ পোলিং অফিসার। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পতে ১২ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।
বিশ্বনাথ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পতে ৮ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এখানে মোট ভোটার ১ লাখ ৫০ হাজার ৬৫৯ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৭৬ হাজার ৫৯৯ এবং মহিলা ৭৪ হাজার ৬০ জন ভোটার ৭৪টি কেন্দ্রে ৩৭৪টি কক্ষে ভোট দেবেন। এউপজেলায় মোট ১ হাজার ১২৬ জন কর্মকর্তা ভোট গ্রহলের দায়িত্বে থাকবেন। এরমধ্যে কেন্দ্র প্রতি একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার, ৩৭৪ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসার ৭৪৮ জন।
ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পতে ৬ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এ উপজেলায় মোট ৭২ হাজার ৬৫৪ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৩৬ হাজার ৪৪৬ এবং মহিলা ৩৬ হাজার ১০৮ জন। এসব ভোটার ৩৬ টি কেন্দ্র ও ১৭৬টি কক্ষে ভোট দেবেন। কেন্দ্রপ্রতি একজন করে প্রিজাইডিং, ১৭৬ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও ৩৬২ জন পোলিং অফিসার ভোট গ্রহণের দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন।
বালাগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এ উপজেলায় ৮০ হাজার ৬০৯ জন মোট ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৪০ হাজার ২২৮ এবং মহিলা ৪০ হাজার ৩৮১ জন। কেন্দ্র প্রতি একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার ৩৪টি কেন্দ্রে ২০৮টি কক্ষে ভোট গ্রহণ করবেন। সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার থাকবেন ২০৮ জন, ৪১৬ জন পোলিং অফিসার থাকবেন ।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় মোট ৯৬ হাজার ৫১০ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৫০ হাজার ৬৬০ এবং মহিলা ৪৫ হাজার ৮৫০ জন ৪০টি কেন্দ্রর ২৫০ কক্ষে ভোট দেবেন। প্রিজাইডিং অফিসার কেন্দ্র প্রতি ১ জন, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ২৫০ ও পোলিং অফিসার ৫শ‘ জন নির্বাচনী দায়িত্বে নিয়োচিত থাকবেন। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।
কানাইঘাট উপজেলার এক লাখ ৭০ হাজার ২৮ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৮৪ হাজার ৮২৭ এবং মহিলা ৮৫ হাজার ২০১ জন। তারা ৮১টি কেন্দ্রের ৩৭৫ কক্ষে ভোট দেবেন। নির্বাচনী দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত থাকবেন প্রতি কেন্দ্রে একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার, ৩৭৫ জন সহকারি প্রিজাইডিং ও ৭৫০ জন পোলিং অফিসার। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।
দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান ৭ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। উপজেলায় মোট ১ লাখ ৭০ হাজার ৩৯১ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৮৬ হাজার ৮৪৬ এবং ৮৩ হাজার ৫৬৫ জন নারী ভোটার ৭৮টি কেন্দ্রে ৪১৭ কক্ষে ভোট দেবেন। এ উপজেলায় কেন্দ্র প্রতি একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার, ৪১৭ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও ৮৩৪ জন পোলিং অফিসার ভোট গ্রহণের দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন।
জৈন্তাপুর উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৬ হাজার ৬২২ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৫৪ হাজার ৪৯৩ এবং মহিলা ৫২ হাজার ১২৯ জন ৪৫টি কেন্দ্রের ২৬৯টি কক্ষে ভোট দেবেন। এ উপজেলায় কেন্দ্র প্রতি একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ২৬৯ ও পোলিং অফিসার ৫৩৮ জন নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করবেন। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।
গোয়াইনঘাট উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এ উপজেলায় মোট ১ লাখ ৭৯ হাজার ৩০২ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৯১ হাজার ৪৫৭ এবং মহিলা ৮৭ হাজার ৮৪৫ জন ৬৯ কেন্দ্রের ৪২৮টি কক্ষে ভোট দেবেন। ভোট গ্রহণে কেন্দ্রপ্রতি একজন করে পিজাইডিং অফিসার ছাড়াও ৪২৮ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও ৮৫৬ পোলিং অফিসার ভোট গ্রহণের দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন।
জকিগঞ্জ উপজেলার মোট ১ লাখ ৫৪ হাজার ৪৮২ জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ৭৮ হাজার ৪৫৩ এবং মহিলা ৭৬ হাজার ২৯ জন ৭৭টি কেন্দ্রের ৩৫৫ কক্ষে ভোট প্রদান করবেন। এখানে কেন্দ্র প্রতি একজন করে পিজাইডিং অফিসার, ৩৫৫ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও ৭১০ জন পোলিং অফিসারের দায়িত্বে থাকবেন। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পতে ৭ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।
গোলাপগঞ্জ উপজেলার মোট ভোটার ২ লাখ ২২ হাজার ৫০০ জনের মধ্যেমধ্যে পুরুষ ১লাখ ১১ হাজার ৫২৫ এবং মহিলা ১ লাখ ১০ হাজার ১৭৫ জন ১০২টি কেন্দ্রে ৫৫৬টি কক্ষে ভোট দেবেন। এখানে প্রিজাইডিং অফিসার ১০২ জন, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ৫৫৬ জন, পোলিং অফিসার ১হাজার ১১২ ভোট গ্রহণের দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবেন। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পতে ৫ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।
বিয়ানীবাজার উপজেলার চেয়ারম্যান পদে ৬ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জনের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন এক লাখ ৭০ হাজার ৬১৫ জন ভোটার। এরমধ্যে পুরুষ ৮৩ হাজার ৮৪৪ এবং মহিলা ৮৬ হাজার ৭৭১ জন। উপজেলায় মোট ৮৯টি কেন্দ্রে ও ৪৬৩টি কক্ষে ভোট গ্রহণে নিয়োজিত থাকবেন কেন্দ্র প্রতি একজন করে প্রিজাইডিং অফিসার, ৪৬৩ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও ৮৯৬ পোলিং অফিসার।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!