রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
এবার ওমান থেকে নির্যাতিত হয়ে ফিরলেন সুনামগঞ্জের নারী  » «   বসন্ত উৎসব মাতাতে সিলেট আসছেন কুমার বিশ্বজিৎ  » «   ওসমানীর জন্ম-মৃত্যুবার্ষিকী রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের দাবি  » «   কুড়িয়ে পাওয়া টাকা মালিকের হাতে দিলেন জগন্নাথপুরের হাফিজ জিয়াউর  » «   মেহেদীর রং না মুছতেই সিলেটে ঘাতক বাস কেড়ে নিলো তাসনিমকে  » «   নাসায় ডাক পেলো বিশ্বের ৭৯ দেশকে পেছনে ফেলা শাবির ‘টিম অলিক’  » «   সিলেটের ভাষা নিয়ে যারা ব্যাঙ্গ করেন তাহারা নির্বোধ (ভিডিও) : ভারতীয় অধ্যাপক  » «   সিলেটে চুন দিয়ে জাহেদের চোখ নষ্ট করা ঘাতক ছানুর ফাঁসির দাবি  » «   বিনা খরচে রেমিট্যান্স যোদ্ধা প্রবাসীদের লাশ দেশে যাবে : অর্থমন্ত্রী  » «   সিলেটে এসে পৌঁছেছে লন্ডনী ফুটবল টিম  » «  

নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থা চালু নিউইয়র্কের মুসলিমদের

সুরমা নিউজ ডেস্ক :
যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থা চালু করেছে নিউইয়র্কের মুসলিম কমিউনিটি। স্বতন্ত্র একটি কমিউনিটি পুলিশিং চালু করেছে তারা। এর নাম দেওয়া হয়েছে মুসলিম কমিউনিটি পেট্রোল অ্যান্ড সার্ভিসেস। সংস্থাটির সদস্যদের ইউনিফর্ম অনেকটা পুলিশ কর্মকর্তাদের মতো ইউনিফর্মের মতো। তাদের ড্রাইভিং কারগুলোও পুলিশ স্কোয়াড কারের মতো। তবে নিউ ইয়র্কের ব্রুকলিন এলাকায় তৎপর এ সংস্থার সদস্যদের ‘সত্যিকারের উদ্দেশ্য’ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দাদের অনেকে।

মুসলিম কমিউনিটি পেট্রোল অ্যান্ড সার্ভিসেস-এর দাবি, তারা নিজস্ব অর্থায়নে পরিচালিত এবং তাদের হয়ে যারা কমিউনিটি পুলিশের সেবা দিচ্ছেন তারা প্রকৃতপক্ষে স্বেচ্ছাসেবী। শিফটিং ডিউটির মাধ্যমে সেবা দিচ্ছেন তারা। কার ও নেভি ব্লু ইউনিফর্মগুলো এসেছে বিভিন্নজনের কাছ থেকে প্রাপ্ত অনুদানের মাধ্যমে।

মুসলিম কমিউনিটি পেট্রোল অ্যান্ড সার্ভিসেস (এমসিপি)-র ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, এমসিপি স্থানীয় সম্প্রদায়ের সদস্যদের সুরক্ষার উদ্দেশে প্রতিষ্ঠিত একটি বেসামরিক সংস্থা। এটি নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের উপদ্রব থেকে স্থানীয়দের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে চায়।

এমসিপি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট নূর রাবাহ মার্কিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, তার সংস্থা স্থানীয়দের প্রহরীর মতো। সংস্থাটি বলছে, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে হেট ক্রাইম বা বিদ্বেষমূলক অপরাধের যে বাড়বাড়ন্ত তার প্রতিক্রিয়া হিসেবেই এমসিপি’র আত্মপ্রকাশ। যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এফবিআই জানিয়েছে, ২০১৬ সালের তুলনায় ২০১৭ সালে দেশটিতে বিদ্বেষমূলক অপরাধ বেড়েছে ১৭ শতাংশ।

ব্রুকলিনের ইসলামিক স্কুলগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিতের পরিকল্পনা করছে এমসিপি। এছাড়া মুসলিম অধ্যুষিত এলাকাগুলোর নিকটবর্তী মসজিদ, বাস ও সাবওয়ে স্টপগুলোতেও তৎপর থাকবে এমসিপি’র সদস্যরা। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে সাত লক্ষাধিক মুসলিমের বসবাস। এদের মধ্যে অনেক বাংলাদেশিও রয়েছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!