রবিবার, ২৪ মার্চ, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

পাঁচ মন্ত্রীর কাছে সিলেটবাসীর ১০ প্রত্যাশা

সুরমা নিউজ:
দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে সিলেট সফরে এসে এ অঞ্চলের উন্নয়নের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকার গঠনের পর কথা রেখেছিলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা। এ কারণে সিলেটবাসী পেয়েছিল অর্থ ও শিক্ষার মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী। একইসঙ্গে অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বও পান সিলেট বিভাগের এক সংসদ সদস্য।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নজরদারি ও তিন মন্ত্রীর চেষ্টায় সিলেট বিভাগে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে, অনেক উন্নয়ন প্রকল্প রয়েছে বাস্তবায়নাধীন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর নতুন মন্ত্রিসভায় সিলেট থেকে ঠাঁই পেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পরিকল্পনামন্ত্রী, বন ও পরিবেশমন্ত্রী, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী এবং প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী।

মন্ত্রিসভায় সিলেট বিভাগের প্রতিনিধিত্ব বাড়ায় উন্নয়ন নিয়ে বেড়েছে সিলেটবাসীর প্রত্যাশাও। পাঁচ মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর হাত ধরে আগামী পাঁচ বছরে এ অঞ্চলের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে দশটি প্রকল্পের বাস্তবায়ন চান সিলেটবাসী। এর মধ্যে নবগঠিত মন্ত্রিসভার পরররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের কাছে সিলেটবাসীর সবচেয়ে বড় উন্নয়ন প্রত্যাশার মধ্যে রয়েছে সিলেট-ঢাকা মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ।

সিলেট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় তার কাছে প্রত্যাশা আইসিটি পার্কের কাজ দ্রুত সম্পাদন করে এটি চালু করা। এসঙ্গে সিলেটে স্পেশাল ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠার বিষয়টি এ অঞ্চলের ব্যবসায়ীদের দীর্ঘদিনের দাবি।

বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলীর কাছে প্রত্যাশা- সিলেট অঞ্চলের একমাত্র বিমানবন্দর ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হিসেবে উন্নীত এবং এখান থেকে সরাসরি ফ্লাইটের সংখ্যা বৃদ্ধি করা।

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রীর কাছে সিলেটবাসী চান বিনিয়োগে বিশেষ কর রেয়াত সুবিধা। এ অঞ্চলের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের কাছে তারা চান- এখানকার পর্যটনের উন্নয়নে প্যাকেজ প্রকল্প, অভ্যন্তরীণ যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন, পরিবেশ বিনষ্টকারী চক্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ, রেলের উন্নয়ন, এতে নতুন বগি সংযুক্ত করা, সিলেট-ঢাকা ও সিলেট-চট্টগ্রাম রুটে অত্যাধুনিক এক্সপ্রেস ট্রেনের ব্যবস্থা করা, দ্রুত সিলেটে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, গ্যাস সংযোগ চালু করা ইত্যাদি।

সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
497Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!