বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
ডিম বালককে বিয়ের প্রস্তাব শ’ শ’ অস্ট্রেলীয় তরুণীর  » «   সিলেটে মেশিনে আদায় হবে যানবাহনের মামলার জরিমানা  » «   রাজনগরে কুড়িয়ে পাওয়া শিশু দু’মাস পর পেল নতুন মায়ের কোল  » «   বিয়ানীবাজারে এবার পরাজিত খছরু’র বাসায় বিজয়ী ভাইস চেয়ারম্যান জামাল!  » «   নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাকুর রহমান মফুরের কৃতজ্ঞতা  » «   নিউজিল্যান্ডে শুক্রবারের জুম্মার আযান ও নামাজ সম্প্রচার করা হবে : জেসিন্ডা  » «   মরমী গানের মাধ্যমে আরকুম শাহ মানুষকে সত্যের পথে ডেকেছেন : ইকবাল সোবহান  » «   নিজেই নির্বাচনী পোস্টার সরিয়ে নিলেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রেমসাগর  » «   কারাগারে আসামীর মৃত্যুর খবরে নবীগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত-১০  » «   আবরারের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ হাইকোর্টের  » «  

অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী ভিসার সুযোগ

সুরমা নিউজ ডেস্ক:
যেসব কাজে কম দক্ষতা প্রয়োজন, এমন কাজের পেশাদারদের জন্য নতুন বছরের শুরুতেই সুখবর আনছে অভিবাসন খ্যাত দেশ অস্ট্রেলিয়া। দেশটিতে তাদের জন্য স্থায়ী বসবাসের সুযোগ দিয়ে রাজ্যভিত্তিক নতুন ভিসা চালু করছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ। শুধু তাই নয়, ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা কম হলেও এ ভিসায় আবেদন করা যাবে। দেশটির ফেডারেল সরকার ইতিমধ্যেই নর্দান টেরিটরি ও ভিক্টোরিয়া রাজ্য সরকারের সঙ্গে ভিসা সংক্রান্ত চুক্তি সাক্ষর করেছে। অন্য রাজ্যের সঙ্গেও এই চুক্তি হতে পারে।
‘Designated Area Migration Agreements (DAMA)’ নামের প্রকল্পের আওতায় নতুন ভিসাটি অনেকটা দেশটির সাবক্লাস ৪৮২ কর্মভিসার মতোই। এই ভিসার চাহিদার পেশা তালিকায় ১১৭টি পেশা রয়েছে। পেশাগুলো প্রধানত কৃষি ও আতিথেয়তা শিল্পকে কেন্দ্র করে। পেশাগুলোর জন্য উচ্চকর্ম ও ইংরেজি ভাষা দক্ষতার প্রয়োজন নেই। ভিসার আবশ্যিক শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে, যে রাজ্যের জন্য ভিসা মঞ্জুর হবে, ভিসার ধরনের ওপর নির্ভর করে সেই রাজ্যে দুই ও চার বছর পর্যন্ত বসবাস ও কাজ করতে হবে। রাজ্যের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও শ্রমের ঘাটতি পূরণে সহজ শর্তের এই ভিসা চালু করছে সরকার। যদিও ভিসাটির আবশ্যিক শর্ত ও আবেদন প্রক্রিয়া এখনো প্রকাশ করেনি অভিবাসন বিভাগ। চলতি বছরের মাঝামাঝির মধ্যেই নতুন ভিসাটির আবেদন প্রক্রিয়া চালুর কথা জানিয়েছেন দেশটির অভিবাসন মন্ত্রী ডেভিড কোলম্যান।
‘সরকার দেশের নির্দিষ্ট অঞ্চলের প্রয়োজন পূরণ করতে অভিবাসন কার্যক্রমকে আরও উন্নতও করার চেষ্টা করছে’, বলেন কোলম্যান। দেশটির প্রধান শহরে জনসংখ্যার চাপ কমাতে নতুন অভিবাসীদের বিভিন্ন অঞ্চলে ভাগ করে দেওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন রাজ্যের শ্রম বাজারের ঘাটতি পূরণেই সরকার নতুন প্রকল্প চালু করেছে বলে জানান তিনি। ডিএএমএ প্রকল্পটির যেকোনো তথ্য রাজ্যভিত্তিক অভিবাসন বিভাগের ওয়েবসাইটে হালনাগাদ করবে সরকার।

কাউসার খান: অভিবাসন আইনজীবী, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া। ইমেইল: <immiconsultants@gmail.com>

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
3.2kTweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!