সোমবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ভিকারুননিসার পরিচালনা কমিটির ক্ষমা প্রার্থনা

সুরমা নিউজ ডেস্ক:
রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় অরিত্রীর মা-বাবার কাছে পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন সভাপতি গোলাম আশরাফ তালুকদার।

বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা মর্মাহত। আমরা এ ঘটনায় জন্য অরিত্রীর বাবা-মায়ের কাছে ক্ষমা চাই। প্রতিষ্ঠানের বৃহত্তর স্বার্থে আমার পদত্যাগের প্রয়োজন হলে আমি করব।’

অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় তৃতীয় দিনের মতো বেশ কিছু ছাত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির মূল ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছে। সকাল সাড়ে ৯টা থেকে শুরু হওয়া শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কিছু অভিভাবকও যোগ দিয়েছেন।

ছাত্রীরা জানায়, তারা যে ছয় দফা দাবি জানিয়েছে, তার মধ্যে কিছু বিষয়ে অগ্রগতি হয়েছে। এতে তারা সন্তুষ্ট। বাকি দাবিগুলোরও বাস্তবায়ন চায় তারা। এ সময় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা পরিচালনা কমিটির সদস্যদের পদত্যাগ এবং অরিত্রীর বাবা-মায়ের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের জন্য তাঁদের কাছে কর্তৃপক্ষের প্রকাশ্যে ক্ষমাপ্রার্থনার দাবি জানায়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে দুপুরে গোলাম আশরাফ তালুকদার ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি জানান।

পরিচালনা কমিটির সদস্যদের পদত্যাগের দাবির বিষয়ে গোলাম আশরাফ তালুকদার বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানের বৃহৎ স্বার্থে পদত্যাগ করতে হলে আমি পদত্যাগ করব। পুরো পরিচালনা কমিটির পদত্যাগের বিষয়টি বোর্ডের মিটিংয়ে উত্থাপন করা হবে। তারপর যে সিদ্ধান্ত হয়।’

তিনি আরও বলেন, শিক্ষকদের গ্রেপ্তার বা অন্যান্য বিষয় আইনগত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে চলছে। আমিও চাই, এটি আইনগত প্রক্রিয়ায় চলুক। এই ধরনের ঘটনা আইনের প্রক্রিয়ায় আনা উচিত, যেন ভবিষ্যতে কোনো বাবা–মায়ের বুক খালি না হয়।

কাল ও পরশু পরীক্ষার বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা চাই, শিক্ষার্থীরা ফিরে আসুক। তবে কাউকে জোর করা যাবে না। তারা নিজের ইচ্ছায় পরীক্ষা দিক।

প্রসঙ্গত, সোমবার (৩ ডিসেম্বর) শান্তিনগরের বাসায় আত্মহত্যা করে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারী। এ ঘটনায় কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ, শাখাপ্রধান ও এক শ্রেণিশিক্ষককে আসামি করে মামলা হয়েছে। ঘটনার পর প্রতিষ্ঠানটির ছাত্রী ও তাদের অভিভাবকেরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

বুধবার (৫ ডিসেম্বর) রাত ১১টার দিকে উত্তরা এলাকা থেকে অরিত্রীর শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ডিবির এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সূত্রে জানা গেছে, ভিকারুননিসার বরখাস্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, শাখাপ্রধান জিনাত আখতারকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। আজকের মধ্যে তাঁরা আদালতে আত্মসমর্থন না করলে আইনি প্রক্রিয়া অনুযায়ী গ্রেপ্তার করা হতে পারে।

এর আগে বুধবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মেনে ভিকারুননিসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, শাখাপ্রধান জিনাত আখতার ও অরিত্রীর শ্রেণিশিক্ষক হাসনা হেনা বরখাস্ত করা হয়। প্রতিষ্ঠানটির গভর্নিং বডির এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
90Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!