সোমবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সিলেটে বিএনপিতে ঠান্ডা লড়াই, দেখা যাচ্ছেনা শীর্ষ নেতাদের

সুরমা নিউজ:
মর্যাদাপূর্ণ সিলেট-১ আসনে দুই প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি তথা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। দলের ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমদ চৌধুরী ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির মর্যাদাপূর্ণ এ আসনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন।

দুইজনকে মনোনয়ন দেওয়ায় ঠান্ডা লড়াইয়ে সিলেট বিএনপি পরিবার। নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে আপাতত নতুন করে বলয় কেন্দ্রিক বিভক্তি। এ অবস্থায় শীর্ষ নেতাদের অনেকে মৌনতা অবলম্বন করছেন। কোনো প্রার্থীর সাথেই এখনও পর্যন্ত দেখা যাচ্ছেনা ঢালাও ভাবে স্থানীয় শীর্ষ নেতাদের।

প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে পরস্পর বিষোদগার করতেও দেখা গেছে। এই বিভক্তি আর বিষোদগার আগামী নির্বাচনে বিএনপিকে আরও সঙ্কটে ফেলতে পারে বলে মনে করেন দলটির একাধিক নেতা। দ্রুতই একক প্রার্থী বেছে নেওয়ার জন্য কেন্দ্রের প্রতি আহ্বান তাদের।

বিএনপির দুই প্রার্থীই বুধবার সিলেটের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে নিজেদের মনোনয়নপত্র জমা দেন। সিলেট-১ আসনের সাবেক সাংসদ আব্দুল মালিক চৌধুরীর ছেলে খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির দুপুরে এবং প্রাইভেটাইজেশন কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ইনাম আহমদ চৌধুরী বিকেলে মনোনয়নপত্র জমা দেন। মুক্তাদির বিএনপির শীর্ষ নেতাদের মধ্যে কেবল জেলার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত সাদেক ও ইনাম আহমদের সাথে কেবল কেন্দ্রীয় সহ-ক্ষুদ্র ঋণ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক উপস্থিত ছিলেন। আর কোনো শীর্ষ নেতাদেরই তাদের সাথে দেখা যায়নি।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনসহ বেশ কয়েকটি কর্মসূচিতে অংশ নেন ইনাম আহমদ চৌধুরী। তবে এসব কর্মসূচিতেও প্রবীণ এই নেতার সাথে সিলেট বিএনপির শীর্ষ নেতাদের দেখা যায়নি। বরং সকালে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের বাসভবনে সৌজন্য সাক্ষাতে যাওয়ার কারণে দলের ভেতরেই সমালোচনায় পড়তে হয় তাকে। তবে দলের এক অংশ থেকে সমালোচনার হলেও ব্যাপকভাবে ইনামের প্রতি মানুষের আগ্রহ বেড়েছে। বিষয়টি ইতিবাচক ও মনে করছেন অনেকে। সিলেটে রাজনীতি ও রাজনীতিকদেও মধ্যে সম্প্রীতি, উদারতা, যে বাস্তবতা তারই নজির দেখলেন ইনাম আহমদ চৌধুরীর মধ্যে দিয়ে।

তবে এই দুই জনকে মনোনয়ন দেওয়ার পরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখা গেছে এই দুই নেতার অনুসারীরা নিজেদের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন। একপক্ষ অপর পক্ষের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগও তুলছেন।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইনাম আহমদ চৌধুরীর সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি সালেহ আহমদ খসরু, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান আহমদ চৌধুরীকে। এ প্রসঙ্গে একাধিক নেতা নামপ্রকাশে অনিচ্ছাশর্তে বলেন, সিলেট-১ দেশের রাজনীতির ক্ষমতা নির্ধারকী আসন। আওয়ামীলীগ একক প্রার্থী দিয়ে একাট্টা হওয়ার চেষ্টা করলেও আমরা এখনো দ্বিধা-সংকটে। তাই যত শিগগিরই প্রার্থী চুড়ান্ত হবে, ততই নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত সহ মাঠে কোমর বেধে নামবে। তবে দলে কোন কার্যত দ্বিধা নেই, অপেক্ষা চলছে একক মনোনয়ন ঘোষনার। এর মধ্যে দিয়ে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটবে। তারা বলেন, প্রতিপক্ষের সাথে মোকাবেলায় হেভিওয়েট প্রার্থীর বিকল্প নেই। অবশ্যই আওয়ামীলীগ প্রার্থীর হাই-প্রোপাইলের বিষয়টি আমাদের প্রার্থী মনোনয়নে মাথায় রাখতে হবে। দলীয় ভাবে নয়, জনগনের পালর্স না বুঝলে খবর হয়ে যাবে আমাদের। ভোটাররা এখন খুবই সচেতন ও দূরদর্শী।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!