শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
৯৯৯-এ কল: সুনামগঞ্জে মধ্যরাতে দুই নারীর প্রতি পুলিশের মানবিকতা!  » «   জাতীয় নির্বাচন : প্রিয় দলের নির্বাচনী প্রচারণায় সিলেটে শতাধিক প্রবাসী  » «   ১৯ নয়, ২১ ডিসেম্বর সিলেট আসছেন প্রধানমন্ত্রী  » «   সিলেটের গ্যালারি নৌকা নৌকা স্লোগানে মুখরিত  » «   আবারো মুখোমুখি আরিফ-কামরান  » «   সিলেটে বিনম্র শ্রদ্ধায় শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ  » «   আমি শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাবো, লড়াই আমি স্বামীর কাছ থেকে শিখেছি -ইলিয়াসপত্নী লুনা  » «   সিলেট স্টেডিয়াম অবশ্যই বাংলাদেশের অন্যতম সেরা : মাশরাফির  » «   সেনাবাহিনী নামবে ২৪ ডিসেম্বর  » «   ৩০ ডিসেম্বর নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের প্রত্যাখ্যান করবে জনগণ  » «  

নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছেন ইমরান এইচ সরকার

সুরমা নিউজ:

একাদশ জাতীয় নির্বাচনের প্রার্থী হচ্ছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। তার গ্রামের বাড়ি কুড়িগ্রাম-৪ আসন থেকে তিনি নির্বাচন করবেন বলে জানা গেছে। রৌমারী, রাজিবপুর ও চিলমারী এই তিন উপজেলা মিলে কুড়িগ্রাম-৪ আসন।

তবে কোনো দলের হয়ে নয়, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন তিনি।

ইমরান বলেন, গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনের পর আমার গ্রামের অনেকে চেয়েছেন আমি যেন জাতীয় নির্বাচনে এলাকার সংসদ সদস্য হওয়ার জন্য নির্বাচন করি। এ বিষয়ে তরুণ থেকে বয়োজ্যেষ্ঠ সবাই উৎসাহ দিয়েছেন। মূলত তাদের আগ্রহের কারণে কুড়িগ্রাম-৪ আসন থেকে নির্বাচন করার কথা ভাবছি। আমি কাজ করলে তাদের জন্যই করব বলেই তাদের এত উৎসাহ।

ইমরান বলেন, আমি পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা নির্বাচন করার বিষয়ে আমাকে সম্মতি দিয়েছেন। আমি যেহেতু কোনো দলের নই তাই কোনো দল থেকে নির্বাচন করার প্রশ্নই আসে না। আমি নির্বাচন করলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করব।

তিনি বলেন, স্রোতের বিপরীতে হাঁটাই আমার কাজ। নির্বাচনেও সেভাবে আমাকে পাবে সাধারণ মানুষ। তাদের কল্যাণের জন্যই আমি নির্বাচন করব। আর এলাকায় আমার যে জনপ্রিয়তা আছে তাতে আমি আমার বিষয়ে আশাবাদী।

ইমরান আরও বলেন, দুই এক দিনের মধ্যেই এ বিষয়ে আমি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি জামায়াতে ইসলামির সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লার রায়কে কেন্দ্র করে ব্লগারস অ্যান্ড অনলাইন অ্যাকটিভিস্ট নেটওয়ার্কের আহ্বানে আর সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণে শাহবাগে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়। এর মুখপাত্র হন ইমরান এইচ সরকার। এ আন্দোলন পরে সারা দেশে ও দেশের বাইরে ছড়িয়ে পড়ে। পরে প্রচণ্ড আন্দোলনের মুখে সরকার আইন সংশোধন করে। এর পরে আপিলের রায়ে কাদের মোল্লার ফাঁসি হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!