শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ

কমলগঞ্জে মানসিক ও শারীরিক প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুরে এক দরিদ্র কৃষকের মেয়ে মানসিক ও শারীরিক প্রতিবন্ধী এক নারী (২৭) ধর্ষণ ঘটনায় অবশেষে কমলগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা হয়েছে। ধর্ষিতার ভাই হাবিব বক্স বাদী হয়ে ধর্ষণকারী নওয়াব আলীকে একমাত্র আসামী করে গত মঙ্গলবার রাতে কমলগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

ধর্ষিতা মানসিক ও শারীরিক প্রতিবন্ধী নারী গত সোমবার থেকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনার খবর পেয়ে মঙ্গলবার দুপুরে কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুজ্জামান সরেজমিন তদন্ত করেন। এসময় তার সাথে ছিলেন কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান, কমলগঞ্জ থানার পরিদর্শক(তদন্ত) সুধীন চন্দ্র দাস। তদন্তকালে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুজ্জামান গ্রামবাসীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তিনি ধর্ষিতার পরিবার সদস্যদের বলেন অভিযোগ দিলে সেটি মামলা হিসেবে গ্রহন করে তদন্তক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সরেজমিন তদন্তকালে গ্রামবাসীরা এই ধর্ষণের ঘটনা ছাড়া আরও অসংখ্য ঘটনায় অভিযুক্ত নওয়াব আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

এ প্রক্ষিতে মঙ্গলবার রাতে নির্যাতিতার ভাই হাবিব বক্স বাদি হয়ে কমলগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। সোমবার হাসপাতালে ভর্তির সময় প্রাথমিক চিৎিসার পর গত মঙ্গলবার দুপুরে আরও এক দফা ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কমলগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক কৃষ্ণমোহন দেবনাথ বলেন, তিনি উপস্থিত থেকে গত মঙ্গলবার নির্যাতিতা প্রতিবন্ধী নারীর আরও এক দফা ডাক্তারী পরীক্ষা করিয়েছেন। অন্যদিকে ধর্ষণকারীকে গ্রেফতারেরও চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আশরাফুজ্জামান বলেন, তিনি সরেজমিন পরিদর্শণ করে নির্যাতিতার পরিবার সদস্য ও গ্রামবাসীর সাথে কথা বলেছেন। হাসপাতালে নির্যাতিতার পরীক্ষা নিরিক্ষা শেষে প্রতিবেদন আসলে জোর আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ ঘটনায় থানায় মামলার হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জোর চেষ্টা চলছে আসামী গ্রেফতার করতে। এ ঘটনায় কোন ছাড় দেওয়া হবে না বলেও তিনি জানান।

উল্লেখ্য, গত সোমবার দুপুরে তার প্রতিবন্ধী নারীকে একা পেয়ে মধ্যভাগ কবরস্থানের পাশে একটি টমেটো খেতের মাঝখানে একটি ছোট ঝুঁপড়ি ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে নওয়াব আলী (৫০)। ঘটনার পর ধর্ষণকারী এলাকা ত্যাগ করলেও এলাকাবাসী ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলেও পরে তাকে দ্রুত মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
28Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!