শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শীতে খসখসে পায়ের যত্নে

সুরমা নিউজ ডেস্ক:
শীত এলেই প্রকৃতি বদলে যায়। প্রকৃতির সেই প্রভাব পড়ে মানুষের ওপরেও। ত্বক হয়ে ওঠে রুক্ষ ও খসখসে। ঠোঁট ফেটে যায়। পায়ের গোড়ালি থেকে চামড়া উঠতে থাকে। চুল ভরে ওঠে খুশকিতে। এ রকম আরো নানা সমস্যা দেখা দেয় শীতে। যদি ঠিকঠাক মতো নিয়ম মেনে চলা যায় তাহলে শীতে আর সৌন্দর্য হানি হয় না, ত্বকও থাকে মসৃণ ও সুন্দর। শীতে কীভাবে ত্বকের যত্ন নেবেন? কীভাবে বজায় রাখবেন পায়ের স্বাভাবিক সৌন্দর্য? কীভাবে কাটিয়ে উঠবেন এ জাতীয় সমস্যা? এসবের উত্তর আজ জেনে নিন আমাদের কাছ থেকে।

কারো কারো মুখমণ্ডলের ত্বক কোমল থাকে কিন্তু পায়ের তলা থাকে খসখসে। মাঝে মাঝে পায়ের তলা দুটো ফুলে যায় এবং চুলকায়। কীভাবে এ সমস্যা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব?

১. গরম পানির মধ্যে সামান্য সোডা বাই কার্বোনেট মিশিয়ে পায়ের তলা তার মধ্যে ভিজিয়ে রাখতে পারেন। খসখসে অংশগুলো ও গোড়ালি ঝামাপাথর দিয়ে জোরে জোরে ঘষে পরিষ্কার করবেন। নাজুক অংশ যেমন আঙুলগুলো পরিষ্কার করবেন একটা নাইলন ব্রাশ দিয়ে। তারপর একটা পরিষ্কার শুকনো তোয়ালে দিয়ে পায়ের পাতা দুটো ভালো করে মুছবেন। এরপর পায়ের তলায় একটা ভালো ট্যালকম পাউডার ছিটিয়ে দেবেন।

অনেক সময় জুতা-মোজা পড়লে পায়ের তলা প্রচুর ঘামায়। ওগুলো পায়ের ত্বকের সাথে লেগে থাকে এবং ঘাম ত্বককে শুষ্ক করে ফেলে। শুষ্ক ত্বকে সর্বদা কোল্ড ক্রিম মাখতে হবে। আপনার আঙুলের ফাঁকগুলোতে ডিওডোরেন্ট ছড়িয়ে দিন। মোজাগুলোকে পরিষ্কার রাখবেন এবং ওগুলো প্রতিবার পরার পরে ধুয়ে দেবেন।

২. পা ফোলার জন্য কার্যকর চিকিৎসা হলো, পা দুটো লেবুর রস অথবা কর্পূর মিশ্রিত স্পিরিট দিয়ে মালিশ করা। যদি চুলকানি থাকে, তাহলে ঘন ঘন পা পরিষ্কার করবেন। ভালো করে পা শুকাবেন এবং পাউডার ছিটিয়ে দেবেন।

যদি সমস্যা থেকে যায় তাহলে গোড়ালি ও আঙুলগুলোতে গ্লিসারিন মাখবেন এবং আধা ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলবেন। গোসলের আগে গোড়ালিতে মধু ঘষবেন।

৩. অ্যাভোকাডো ও চিনির স্ক্রাব: অ্যাভোকাডোতে উপস্থিত স্বাস্থ্যকর ফ্যাট আপনার ত্বকে পোষণ জোগায় ও আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনে৷ অর্ধেক অ্যাভোকাডো ম্যাশ করে নিন একটা ছোট বাটিতে৷ তার মধ্যে মিশিয়ে নিন এক টেবিলচামচ অলিভ অয়েল এবং আধকাপ মতো চিনি৷ এই মিশ্রণটা পায়ে ভালো করে লাগান, সার্কুলার মোশনে ঘষে ঘষে লাগালে উঠে যাবে ত্বকের যাবতীয় মৃত কোষ৷ তার পর ভিটামিন ই সমৃদ্ধ কোনো ভারী ময়েশ্চরাইজ়ার লাগিয়ে নিন৷

৪. দই আর মধুর মাস্ক: বাড়িতে পাতা দইয়ের ল্যাকটিক অ্যাসিড ফিরিয়ে আনবে আপনার ত্বকের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা৷ সঙ্গে মিশিয়ে নিন এক বড়ো চামচ মধু৷ মিনিট ১০ থেকে ১৫ রাখুন, তার পর সামান্য গরম পানিতে ধুয়ে কোনো ময়েশ্চরাইজ়ার লাগান৷

৫. অলিভ অয়েল আর চিনি: অলিভ অয়েল ত্বকে আর্দ্রতা জোগায়, চিনি কাজ করে স্ক্রাবার হিসেবে৷ দুই বড়ো চামচ অলিভ অয়েল ও চিনি মিশিয়ে নিন৷ তারপর বেশ করে ঘষে ঘষে লাগান পায়ে৷ মিনিট 15 পর তেলটা টেনে যাবে৷ তখন ধুয়ে ক্রিম লাগিয়ে নিন৷ দিনে দুই থেকে তিনবার এমনটা করতে পারেন৷

৬. অ্যালো ভেরা জেল: তাজা অ্যালো ভেরা জেল আর কয়েক ফোঁটা ভিটামিন ই তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন৷ পায়ে লাগান৷ মিনিট পনের পর ধুয়ে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে নিন৷

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!