মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
নগরীর ধোপাদিঘী পরিষ্কারে আরিফের আধুনিক যন্ত্র  » «   নির্বাচন এলেই আমি রাজাকারের ছেলে হয়ে যাই : মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী  » «   ওসমানীনগরে মোটর সাইকেলের চাকায় শাড়ির আঁচল পেচিয়ে মহিলা ইউপি সদস্যর মৃত্যু  » «   নির্যাতনের ছক তৈরী করতেন এমপি কয়েস !  » «   ফেসবুকে পোস্ট শেয়ার করায় লন্ডনে বাঙালি কাউন্সিলর সাসপেন্ড  » «   গোলাপগঞ্জে স্ত্রীর মামলায় স্বামী গ্রেফতার, খাবার নিয়ে আসলেন স্ত্রী !  » «   লন্ডনে তরুণীকে অচেতন করে ধর্ষণ, দুই বাঙালি তরুণের ২৪ বছরের জেল  » «   বিয়ানীবাজারে শিমুল মুস্তাফার আবৃত্তি সন্ধ্যা ও প্রেরণা আবৃত্তি উৎসব সম্পন্ন  » «   ব্রিটেন ছাড়তে চান না বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা যে কারনে…  » «   এশিয়ার সবচেয়ে ছোট গ্রাম বিশ্বনাথের শ্রীমুখ !    » «  

কমলগঞ্জে বিশ্বকর্মা পুজায় দুষ্কৃতিকারীর হামলায় মহিলাসহ আহত ৬

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে শ্রীশ্রী বিশ্বকর্মা পুজায় দুষ্কৃতিকারীদের হামলায় অনন্ত ৬ জন আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ১৭ সেপ্টেম্বর সোমবার বিকাল ৫টার পর উপজেলার ১নং রহিমপুর ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামে। এব্যাপারে কমলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে। ঘটনাস্থলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি পরিদর্শন করছেন।

জানা যায়, ১৭ সেপ্টেম্বর সোমবার সনাতন (হিন্দু) ধর্মাবলম্বীদের শ্রীশ্রী বিশ্বকর্মা দেবতার পূজা ছিল। ঐদিন বিকাল ৫টায় কমলগঞ্জ উপজেলার ১নং রহিমপুর ইউনিয়নের বিষ্ণুপুর গ্রামের সুখময় মালাকারের বাড়ির যাওয়ার রাস্তায় কয়েকজন দুষ্কৃতিকারীরা মহিলাদের উক্ত্যক্ত করে। এর প্রতিবাদে বিষ্ণুপুর গ্রামের বাপ্পা মালাকার ও সুকান্ত মালাকার তাদেরকে বাধা প্রদান করলে দুষ্কৃতিকারী মাছুম মিয়া, মিলন মিয়া, বাবলা মিয়া, তারেক মিয়া, সোহেল মিয়া, ফিরোজ মিয়া, সেলিম মিয়া, সাবাজ মিয়া, ইকরাম মিয়া, জহুর মিয়া, রায়হান মিয়াসহ দলবল নিয়ে সুখময়ের বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারধর করে। এতে মহিলাসহ ৬ জনকে আহত হন। আহতরা হলেন গৌরাঙ্গ মালাকার, সুখুত মালাকার, লটু মালাকার, লক্ষী রানী মালাকার, রিনা রানী মালাকার, লক্ষী রানী মালাকার। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এব্যাপারে আহত সুখুত মালাকার বলেন, পূজার শেষে ভক্তবৃন্দ বাড়ীতে প্রসাদ পাওয়ার জন্য বসলে হঠাৎ স্থানীয় দৃষ্কৃতিকারীদের হামলায় সবকিছু তছনছ হয়ে যায়। ভয়ে ভক্তবৃন্দগণ প্রসাদ না খেয়েই দিকবেদিগ ছুটাছোটি করে চলে যান। এমন ঘটনায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায় আতংকিত হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম ঘটনাস্থলে পৌঁছলে দৃষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়। এব্যাপারে অভিযুক্তদের যোগাযোগ করা হলে তাদেরকে পাওয়া যায়নি।

বিষ্ণুপুর গ্রামের স্থানীয় সংবাদকর্মী অঞ্জন প্রসাদ রায় চৌধুরী ঘটনাস্থলে গিয়ে সরজমিন দেখতে পেয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হককে অবগত করেন। এ ব্যাপারে ১৮ সেপ্টেম্বর বিকালে কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আরিফুর রহমান জানান, কেউ এসে অভিযোগ করেনি, অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!