বুধবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন : প্রধানমন্ত্রীর নিকট স্মারকলিপি পেশ

শাল্লা প্রতিনিধি:
শাল্লা উপজেলায় কৃষিসম্প্রসারণ অধিদপ্তরের শূূন্যপদ পুরণ এবং কৃষি সহায়তা কার্ড সংস্কারের দাবিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রধান করেছে হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন শাল্লা উপজেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয় শাল্লা উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জনবল সংকটের কারণে স্থবির হয়ে পড়েছে। এই উপজেলায় কৃষি কর্মকর্তা, অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা ২জন কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তার মধ্যে কেউ নেই। ১২জন উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তার মধ্যে আছেন মাত্র ৫জন। একই অবস্থা অফিস সহকারিদের বেলায়ও। বোরো আবাদের সময় বিশেষ করে সংকটকালে এই শূন্যতা বিশাল ক্ষতির কারণ হতে পারে । স্মারকলিপিতে আরো উল্লেখ করা হয় ২০১৭ সালের ফসলহানির পর কৃষকদের পুনর্বাসনে সরকারের আন্তরিকতার বহিঃপ্রকাশ হলেও, কৃষকের চাহিদার তুলনায় ছিলো অপ্রতুল। পুরো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে আমরা দেখেছি, সারা উপজেলায় ২৩হাজার ৮শ’ ৬জন কৃষি উপকরণ সহায়তা কার্ডধারীকে এই সহায়তার প্রদান করা হয়।

শাক-সবজি চাষাবাদকারী কৃষকদের ক্ষেত্রে জমির পরিমাণ যাই থাকুক, হাওরের বোরো ফসলচাষি কৃষকের কার্ড পাওয়ার যোগ্যতা নূন্যতম ৬০ শতাংশ নির্ধারণ এবং সরকারি খাদ্য গোদামে বোরো চাষি ভিন্ন অন্য কোনো কৃষকের ধান বিক্রি করার সুযোগ বন্ধ করা। এসব দাবি নিয়ে ১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে-স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক তরুণ কান্তি দাস, সহ-সভাপতি অবিনাশ চন্দ্র দাস, উপদেষ্টা আজমান গণি তালুকদার, রবীন্দ্র চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত সেন, যুগ্ম-সম্পাদক উপানন্দ দাস, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক নরেন্দ্র কুমার দাস, মৎস্য বিষয়ক সম্পাদক ধীরেন্দ্র কুমার দাস, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেজিয়া বেগম, বাহাড়া ইউপি চেয়ারম্যান বিধান চন্দ্র চৌধুরী, আটগাঁও ইউপির সভাপতি ছুরত আলী প্রমুখ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!