শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ

মাগো-তোমার জন্য এই খোলা চিঠি

ভোরের কাগজের সাবেক সিলেট প্রতিনিধি ও বর্তমানে একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যাংকার  বিনায়ক চক্রবর্তী শুভ কিছুদিন পূর্বে  তার মাকে হারিয়েছেন। তার মহিয়সী মা দীর্ঘ চাকুরীজীবন পেরিয়ে গত ২২ জুলাই অবসর গ্রহণের প্রাক্কালে ব্যাংক থেকে ফেয়ারওয়েল নেন। ফেয়ারওয়েল থেকে বাসায় ফিরে ওই দিন সন্ধ্যায় স্ট্রোকে আক্রান্ত হন । প্রথমে সিলেট, পরে ঢাকায় ২০ দিন ধরে মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করে গত ১০ আগস্ট মৃত্যু বরণ করেন। মমতাময়ী-গর্ভধারিণী মাকে হারিয়ে বিনায়ক শুভ মায়ের উদ্দেশ্যে একটি চিঠি লিখেন। সেই আকুতি ভরা চিঠি প্রকাশ করা হলো সুরমা নিউজের পাঠকদের উদ্দেশ্যে।

‘মাগো- তোমার জন্য এই খোলা চিঠি’

মা, বরং তুমি চলে গিয়ে আরও কাছাকাছি ভিড়ে গেছো আমার! তোমার উপস্থিতি আরও সজিব হয়ে জ্বলে ওঠেছে এই মনে। এখন একটু সুযোগ পেলেই আমি তোমায় নিয়ে ভাবনার পসার মেলে বসি। তোমাকে যে ব্যর্থ প্রমাণ করতেই হবে আমার!

তোমার-আমার ব্যস্থতার জীবনে তোমায় একান্তে কিছুটা সময় দেয়ার ফুরসত আর কতইবা পেয়েছি..!? সে আক্ষেপ কোন দিনই ঘোচবেনা। জানো, আজকাল আমি তোমার জন্য একটু একটু করে সময় জমিয়ে রাখি। জানি এসবের কোন কিছুই আর প্রকৃত অর্থে কাজে আসবে না। আহ্লাদি করে হলেও তোমার হাতে কপাল ঠেকিয়ে নিজের জ্বর মাপা হবে না আর! তবুও নিরব হয়ে তোমার কথা ভাবতেই বরং বেশি ভাল লাগে আমার। তোমায় নিয়ে হাজারো স্মৃতি চোখের সামনে জ্বলজ্বল করে ওঠে। বুকটা হাহাকার করে। কিন্তু তাতে আমি দমে যাই না। তোমাকে যে ব্যর্থ প্রমাণ করতেই হবে আমার..! আমায় ছেড়ে দূরে থাকার তোমার প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দেয়ার এক আদিম সুখে, গাল বেয়ে অনেক ফোঁটা জল গড়িয়ে পড়ে মাটিতে!!

২) ১০ আগস্ট, শুক্রবার। দুপুরে আচমকা, দমকা হাওয়ার মতো ঘটল ঘটনাটা। আইসিইউতে মুখোমুখি মা-ছেলে। শ্বাসপ্রশ্বা:স ক্রমেই ক্ষীন হয়ে আসছে তোমার। সারা শরির নিথর, অচৈতন্যের মতো উদাস চোখ মেলা ছিল শুধু। সে চোখের ভাষা পড়ার মতো জ্ঞান আমি অর্জন করিনি যে ! কী ছিল মা সে দৃষ্টিতে তোমার? চির মুক্তি নাকি বাঁচার আকুতি…? কে জানে…!!

এদিকে, সমানে চলছে ডাক্তার নার্সদের শেষ চেষ্টা। মনিটরের রেখাগুলো এক সময় পরিণত হলো সরল রেখায়। ওদিকে তুমি তোমার মরণ রথ চালানোর নির্দেশ দিলে যেন বাতাসের বেগে, শূণ্যে। এত নিঠুর মানুষ কি করে হয় জানিনা! এত এক চোখা আগেতো ছিলেনা-মা ! পেছন ফিরে একটু তাকালেও না পর্যন্ত! আমার রক্তাক্ত বুকের পাঁজড়ের কনাগুলো ক্ষতবিক্ষত হয়ে লেগে আছে তোমার রথের চাকার গোল অংশটায়, তোমার ফেলে আসা পথের শিশিরে….! আশ্চর্য, তোমার তাতে দৃষ্টিই নেই ! তোমায় নিয়ে বানানো সকল ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ব্যর্থ করে দিয়ে তুমি বাতাসে মিশে যেতে যেতে একটিবারও শুনলে না তোমার শুভাকাঙ্খিদের কান্নার রোল। তোমার চৈতন্য ফিরিয়ে আনার সকল জোগাড়-যন্ত্র ব্যর্থ করে দিয়ে তুমি ছুটে চললে। ছুট দিলে অনন্তের পথে…! মাগো- এক জনমের জন্য আমি হারালাম তোমাকে..!!

 

(লেখাটি  বিনায়ক চক্রবর্তী  শুভ’র ফেইস বুক পেইজ থেকে নেওয়া)

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
24Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!