রবিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশি যেসব পেশাজীবীদের জন্য উন্মুক্ত হলো আরব আমিরাত…

 

সুরমা নিউজ:

সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলদেশি ডাক্তার ও ইঞ্জিনিয়ারদের ভিসা উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে। ডাক্তার ও সংশ্লিষ্ট পেশাজীবীদের জন্য সব শাখা ও প্রকৌশলীদের জন্য ৬৮টি শাখায় এ ভিসা দেয়া হবে। জানালেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে(ইউএই) নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ডা. মোহাম্মদ ইমরান।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রবাসী প্রকৌশলী ও বাংলাদেশ সমিতির যৌথ আয়োজনে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এই তথ্য জানান।

প্রায় ছয় বছর ধরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশিদের জন্য অঘোষিতভাবে এমপ্লয়মেন্ট ভিসা বন্ধ রয়েছে। যদিও প্রকৌশলী ও ডাক্তারদের ভিসা খোলা ছিল, তবে কর্তৃপক্ষের ভিসা বন্ধের অজুহাতে বিভিন্ন সময়ে ভিসা প্রত্যাশীরা প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন।

বর্তমানে এ পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে এবং প্রকৌশলী ও ডাক্তারদের জন্য ভিসা উন্মুক্তকরণ সরকারের বড় একটি কূটনৈতিক সফলতা বলে মনে করেন রাষ্ট্রদূত ডা. মোহাম্মদ ইমরান।

তিনি বলেন, আরব আমিরাতের মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো চিঠির মাধ্যমে পেশাগুলির ভিসা উন্মুক্ত করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। যেসব ক্ষেত্রে প্রকৌশলীদের ভিসা দেয়া হবে তা হলো-

(ক) আর্কিটেক্ট শাখা: আর্কিটেক্ট ইঞ্জিনিয়ার, আর্কিটেক্ট, ল্যান্ডস্কেপ আর্কিটেক্ট, আরবান প্ল্যানিং ইঞ্জিনিয়ার, ডেকর ইঞ্জিনিয়ার।

(খ) সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা: প্রজেক্ট ইঞ্জিনিয়ার, সিভিল ইঞ্জিনিয়ার(বিল্ডিং কন্সাস্ট্রাকশন, হাইওয়ে ও রোড, ব্রিজ, এয়ারপোর্ট, পোর্ট, রেলওয়ে, ড্যাম, ইরিগেশন, ট্র্যাফিক ইঞ্জিনিয়ার, সয়েল ম্যাকানিক্স, জেনারেল সার্ভে, এয়ার সার্ভে, সি সার্ভে।

(গ) ইলিকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা: জেনারেল ইলেকট্রিক্যাল, ইলিকট্রিক পাওয়ার জেনারেশন, পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন অ্যান্ড ট্রান্সমিশন, পাওয়ার ট্রান্সমিশন, পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন, ইলিকট্রিক্যাল লাইন্স, ইলিকট্রিক্যাল মেইন্টেন্যান্স, প্রিসিশন ইন্সট্রুমেন্ট, মনিটরিং অ্যান্ড কন্ট্রোল।

(ঘ) ইলিকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা: জেনারেল ইলেক্ট্রনিক্স, রেডিও অ্যান্ড টেলিভিশন, ট্রান্সমিশন, মেইন্টেন্যান্স, এরোপ্লেন রেডিও অ্যান্ড রাডার ইঞ্জিনিয়ার।

(ঙ) মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা: জেনারেল মেকানিক্যাল, প্রোডাকশন, কাস্টিং, ওয়েলডিং, সেন্ট্রাল এয়ারকন্ডিশনিং, জেনারেল মেইন্টেন্যান্স, অটোমোটিভ, রোড মেশিনারি, ট্রেন মেইন্টেন্যান্স, এরোপ্লেন মেইন্টেন্যান্স, শিপ মেইন্টেন্যান্স, এগ্রিকালচার মেশিনারি, নিউক্লিয়ার পাওয়ার।

(চ) কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা: জেনারেল কেমিক্যাল, রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, পেট্রোলিয়াম, ফার্টিলাইজার, ফুড ইন্ডাস্ট্রি।

(ছ) মাইন ও মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা: জিওলোজিকাল, মাইনিং, পেট্রলিয়াম, অয়েল ড্রিলিং, এক্সপ্লোসিভস।

(জ) ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং শাখা: জেনারেল, ফ্যাক্টরি প্ল্যানিং, ইকুইপম্যান্ট ইন্সটলেশন, ম্যানুফেকচারিং, অকুপেশনাল হেলথ অ্যান্ড সেফটি, হ্যান্ডেলিং, ম্যাটেরিয়াল, টাইম অ্যান্ড মোশন স্টাডি, পাবলিক হেলথ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট।

অনুষ্ঠানের শেষ ভাগে প্যানেল পর্বে রাষ্ট্রদূত ও জ্যেষ্ঠ প্রকৌশলীর উপস্থিত প্রকৌশলীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

প্রকৌশলী এস এ মোরশেদের পরিচালনায় মতবিনিময় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন, জ্যেষ্ঠ প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবু জাফর চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ প্রকৌশলী মশিউর রহমান ও প্রকৌশলী মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!