রবিবার, ২২ জুলাই, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সিলেট নগরে নৌকা মার্কার জোয়ার উঠেছে : আসাদ উদ্দিন  » «   শাল্লায় ‘হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও’ আন্দোলনের উপজেলা পর্যায়ে প্রথম সম্মেলন  » «   কমলগঞ্জে শতভাগ পাশ শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ  » «   এবার ব্যর্থ হয়ে ফিরলেন আরিফ, কামরান বললেন ‘নাটক’  » «   কমলগঞ্জে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক  » «   সিলেটে যুবলীগ নেতার রেস্টুরেন্টে শিবিরের হামলা  » «   নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে শফিকুর রহমানের গণসংযোগ  » «   ২ কর্মীকে ছাড়াতে পুলিশ কার্যালয়ের সামনে আরিফসহ বিএনপি নেতাদের অবস্থান  » «   বাংলাদেশি যেসব পেশাজীবীদের জন্য উন্মুক্ত হলো আরব আমিরাত…  » «   একসঙ্গে ৬ মৃত সন্তান প্রসব মৌসুমীর  » «  

বালাগঞ্জের সড়কে চরম জনদুর্ভোগ

সুরমা নিউজ:
আদিত্যপুর-রিফাতপুর-গহরমলী সড়ক ভেঙে বড়-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন রাস্তাটির দুই সাইড ভেঙে যাওয়ার কারণে বর্তমানে অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে। ফলে জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। পাশাপাশি যাত্রীবাহী ছোট-বড় যানবাহন প্রতিদিনই ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। র্দীঘদিন যাবৎ রাস্তাটির ভগ্ন দশায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষ। চলতি বর্ষায় অতিবৃষ্টির কারণে রাস্তাটি বেহাল রূপ ধারণ করেছে।
এছাড়া বন্যাকবলিত ও হাওরাঞ্চল হওয়ায় রাস্তাটি এখন নিশ্চিহ্ন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও জনপ্রতিনিধিদের অবহেলা আর গাফিলতির কারণে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে রাস্তাটি সংস্কারহীন রয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

সরজমিন গিয়ে যায়, বালাগঞ্জ-তাজপুর সড়কের আদিত্যপুর মোড় থেকে শুরু হওয়া চার কিলোমিটার দৈর্ঘের কাঁচা-পাকা রাস্তাটি সিলেট-সুলতানপুর-বালাগঞ্জ সড়কের সঙ্গে মিলিত হয়েছে। ২০০৪ সালের প্রথম দিকে রাস্তার কিছু অংশে পাকাকরণ কাজ করা হয়। রাস্তাটি পাকাকরণের সঙ্গে-সঙ্গেই ওই বছরের স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় রাস্তাটি ভেঙে যায়। এরপর কয়েক দফা বন্যায় আক্রান্ত হয় রাস্তাটি। যোগাযোগ অব্যাহত রাখার স্বার্থে স্থানীয়দের উদ্যোগে রাস্তার পিচ করা অংশে কংক্রিট বিছিয়ে দেয়া হয়েছিল। অপরদিকে, রাস্তার মধ্য অংশে চরসুবিয়া গ্রাম থেকে দক্ষিণ রিফাতপুর ভৈরবতলী পিচের মুখ পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার রাস্তা এখনো পাকাকরণ হয়নি। রাস্তার এই দেড় কিলোমিটার অংশে কয়েক বছর পূর্বে সামান্য মাটির কাজ করা হলেও এলাকাটি নিম্নাঞ্চল হওয়ায় প্রতিবর্ষায় বৃষ্টিপাতে অধিকাংশ সময় রাস্তায় পানি জমার কারণে রাস্তাটি এখন ক্ষেতের জমিনের সমান হয়ে গেছে। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়- রিফাতপুর, দক্ষিণ রিফাতপুর, চড় হাড়িয়া, চরসূবিয়া, মানন, গহরমলী, রহমতপুর, কোষারগাঁওসহ সংশ্লিষ্ট এলাকার ১০ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের চলাচলের এটিই একমাত্র রাস্তা। কিন্তু রাস্তাটি সম্পূর্ণরূপে পাকাকরণ না হওয়ায় এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বর্ষা মৌসুমে শিক্ষার্থীদের অনেক কষ্ট করে নৌকাযোগে স্কুল-কলেজ, মাদরাসায় যেতে হয়। আবার অনেকের নৌকা না থাকার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেতে পারেন না। এতে করে বর্ষা মৌসুমে এলাকার অধিকাংশ শিক্ষার্থীর ক্লাস করার সুযোগ হয়ে উঠেনা। চার কিলোমিটার রাস্তার মধ্যে পাকা অংশ সংস্কার এবং রাস্তার অসম্পূর্ণ দেড় কিলোমিটার অংশ দ্রুত পাকাকরণের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। দক্ষিণ রিফাতপুর গ্রামের মোতাহীর আলী, চরহাড়িয়া গ্রামের আব্দুল গফুর গেদাই, চরসুবিয়া গ্রামের এসএম তুরনসহ এলাকার কয়েকজন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, চার কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের রাস্তায় মধ্যে দেড় কিলোমিটার পাকা না হওয়ায় বর্ষা মৌসুমসহ সারা বছরই আমাদের চলাচলের খুবই সমস্যা হচ্ছে।
বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মুনিম বলেন, এই রাস্তার পাকা না হওয়া অংশে গত বছর ইট সলিংয়ের কাজ করার ব্যবস্থা করা হয়েছিল কিন্তু বর্ষায় বৃষ্টিপাত এবং দীর্ঘমেয়াদী বন্যার কারণে কাজ করা সম্ভব হয়নি। বন্যায় রাস্তার প্রচুর মাটি ক্ষয়ে গেছে তাই মাটি ভরাটের কাজ শেষ করেই ইট সলিংয়ের কাজ শুরু করতে হবে।
বালাগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম বলেন, আদিত্যপুর-রিফাতপুর-গহরমলী সড়কের পাকা অংশ সংস্কার এবং অসম্পূর্ণ অংশ পাকাকরণের জন্য একটি প্রকল্প প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!