মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
নগরীর ধোপাদিঘী পরিষ্কারে আরিফের আধুনিক যন্ত্র  » «   নির্বাচন এলেই আমি রাজাকারের ছেলে হয়ে যাই : মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী  » «   ওসমানীনগরে মোটর সাইকেলের চাকায় শাড়ির আঁচল পেচিয়ে মহিলা ইউপি সদস্যর মৃত্যু  » «   নির্যাতনের ছক তৈরী করতেন এমপি কয়েস !  » «   ফেসবুকে পোস্ট শেয়ার করায় লন্ডনে বাঙালি কাউন্সিলর সাসপেন্ড  » «   গোলাপগঞ্জে স্ত্রীর মামলায় স্বামী গ্রেফতার, খাবার নিয়ে আসলেন স্ত্রী !  » «   লন্ডনে তরুণীকে অচেতন করে ধর্ষণ, দুই বাঙালি তরুণের ২৪ বছরের জেল  » «   বিয়ানীবাজারে শিমুল মুস্তাফার আবৃত্তি সন্ধ্যা ও প্রেরণা আবৃত্তি উৎসব সম্পন্ন  » «   ব্রিটেন ছাড়তে চান না বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা যে কারনে…  » «   এশিয়ার সবচেয়ে ছোট গ্রাম বিশ্বনাথের শ্রীমুখ !    » «  

জগন্নাথপুরে ধসে যাওয়া এ্যাপ্রোচ সেতুর সংস্কার কাজ শেষ হয়নি সাত মাসেও

গোবিন্দ দেব, জগন্নাথপুর:
জগন্নাথপুরের নলুজুর সেতুর ধসে যাওয়া এ্যাপ্রোচের সংস্কার কাজ সাত মাসেও শেষ হয়নি। গত বছরের ৬ ডিসেম্বর জগন্নাথপুর-শিবগঞ্জ-বেগমপুর সড়কের ঘোষগাঁও নামকস্থানে সেতুর এপ্র্যোচের একাংশে ধসে পড়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে প্রায় তিন মাস। এখনও কোনধরনের ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে কোনভাবে ঝুঁকি নিয়ে ছোট ছোট যানবাহনগুলো চলাচল করছে।

স্থানীয় উপজেলা এলজিইডি কার্যালয়, এলাকাবাসী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সালের মে মাসে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি নলজুর নদীর ওপর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের ঘোষগাঁও নামক স্থানে ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৩৯.১৫ মিটার গার্ডার সেতুর উদ্বোধন করেন। কিন্তুু সংযোগ সড়কের (এ্যাপ্রোচের) জায়গার পশ্চিম অংশের মালিকানা নিয়ে বিরোধ থাকায় এ্যাপ্রোচের কাজ শেষ হয়নি। বিকল্প এ্যাপ্রোচ ব্যবহার করে যান চলাচল শুরু হয়। এই সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত উপজেলার রানীগঞ্জ, পাইলগাঁও ও আশারকান্দি এ তিনটি ইউনিয়নের মানুষ উপজেলা সদরে আসা যাওয়া করতে হয়। পাশাপাশি এ সড়ক দিয়ে পাশ্ববর্তী ওসমানিগঞ্জ-বালাগঞ্জের থানা সদরে উপজেলাবাসী যাতায়াতের সুবিধা বেশি।

ঘোষগাঁও গ্রামের রমজান আলী ছানা বলেন, গত বছরের শেষের দিকে সেতুর এ্যাপ্রোচের কিছু অংশে ভাঙন দেখা দেয়। এর পর থেকে একাধিকবার একই স্থানে ভাঙন সৃষ্টি হয়। সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষ স্থানীয়ভাবে কোন কাজ না করে সংস্কারের নামে নামমাত্র সামান্য কাজ করে। কাজের টেকশনই না হওয়ায় এ্যাপ্রোচ ধসে পড়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়লে জনসাধারণ চরম দূর্ভোগে পড়েন। এ সড়ক দিয়ে নিয়মিত যাতায়াতকারী কুবাজপুর গ্রামের মাসুম আহমদ বলেন,ক্ষতিগ্রস্থ এ্যাপ্রোচের এক পাশ দিয়ে ঝুকিঁপূর্ণ অবস্থায় অটোরিকশা, রিকশাসহ ছোটধরনের যানবাহন চলাচল করছে। ভারী যানবাহন চলে না। গত সাত মাসেও এ্যাপ্রোচের কাজ শেষ না হওয়ায় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ।

জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ঘোষগাঁও গ্রামের বাসিন্দা রেজাউল করিম রিজু মিয়া সুরমানিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নলজুর সেতুদিয়ে তিনটি ইউনিয়নের লোকজন উপজেলা সদরে যাতায়াত করেন। অপরদিকে উপজেলা সদরের বাসিন্দারা কম সময়ে ঢাকা- সিলেট মহাসড়কের বেগমপুরে যাতায়াত করতে পারেন। দ্রুত স্থানীয়ভাবে সংস্কার কাজ করে জনদূর্ভোগ লাঘবে সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডির জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম সারোয়ার বলেন, চলতি সপ্তাহের মধ্যেই স্থানীয়ভাবে এ্যাপ্রোচের কাজ শুরু হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!