শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জে রাতের আঁধারে ‘খড়’ দিয়ে সরকারি রাস্তা পাকাকরণ!

সুরমা নিউজ:
রডের পরিবর্তে বাঁশের কাহিনীর পর এবার দেখা গেলো রাস্তা পাকা করণে ইট-পাথরের পরিবর্তে খড়ের ব্যবহার! তাও আবার সরকারি একটি পাকা রাস্তায়। রাস্তার কাজে এই বিস্ময়কর দুর্নীতির ঘটনা ঘটেছে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে। সরকারি ব্যয়ে এ সড়কের পাকা করণে খড়ের উপর করা হয়েছে কার্পেটিং!

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের একজন সাইট অফিসার থাকার পরও ঠিকাদারের এমন কর্মকাণ্ডে সাধারণ মানুষের মাঝে বিস্ময়ের সৃষ্টি করেছে। আলোচিত এ দুর্নীতির ঘটনাটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মঈন উদ্দিন ইকবালের নজরে এলে তিনি গত মঙ্গলবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং রাস্তা পাকা করণের কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন।

চুনারুঘাটের স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগ ও স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি উপজেলার শানখলা-দেউন্দি সড়কে পাকা করণে ১ কোটি ১১ লাখ টাকা বরাদ্দ করে স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগ। কাজটি বি-বাড়িয়ার ঠিকাদার আমিনুল ইসলামের কাছ থেকে কিনে নেন শায়েস্তাগঞ্জ যুবলীগ নেতা কবির মিয়া। গত সপ্তাহ খানেক সময় ধরে কাজ করে যাচ্ছে ঠিকাদারি এ প্রতিষ্ঠানটি। রাতের আঁধারে কাজ করার কারণে স্থানীয় মানুষের মনে সন্দেহের সৃষ্টি হয় এবং গত মঙ্গলবার এলাকাবাসী দলবদ্ধ হয়ে রাস্তার কার্পেটিং তুলেন এবং কার্পেটের নিচে খড় আবিষ্কার করেন।

বিষয়টি তাৎক্ষণিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেন। এ বিষয়ে ঠিকাদার পক্ষের কেউ কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি তবে এলজিইডি বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী আনিসুর রহমান সত্যতা স্বীকার করে বলেন, যে সমস্ত স্থানে কাজের গাফিলতি ধরা পড়েছে সেগুলো ঠিকঠাক করা হবে। তবে ঠিকাদারদের ব্যাপক এই দুর্নীতির বিষয়ে কোন ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না তা তিনি এই মুহূর্তে জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। কাজটি কত তারিখ থেকে কত তারিখের মধ্যে শেষ হবে তাও জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মঈন উদ্দিন ইকবাল বলেন, রাস্তায় এ ধরণের দুর্নীতি খুবই ন্যাক্কারজনক। এই দুর্নীতির বিষয়ে তিনি চীফ ইঞ্জিনিয়ারের সাথে কথা বলেছেন বলে জানান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!