রবিবার, ২২ জুলাই, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সিলেট নগরে নৌকা মার্কার জোয়ার উঠেছে : আসাদ উদ্দিন  » «   শাল্লায় ‘হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও’ আন্দোলনের উপজেলা পর্যায়ে প্রথম সম্মেলন  » «   কমলগঞ্জে শতভাগ পাশ শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ  » «   এবার ব্যর্থ হয়ে ফিরলেন আরিফ, কামরান বললেন ‘নাটক’  » «   কমলগঞ্জে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক  » «   সিলেটে যুবলীগ নেতার রেস্টুরেন্টে শিবিরের হামলা  » «   নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে শফিকুর রহমানের গণসংযোগ  » «   ২ কর্মীকে ছাড়াতে পুলিশ কার্যালয়ের সামনে আরিফসহ বিএনপি নেতাদের অবস্থান  » «   বাংলাদেশি যেসব পেশাজীবীদের জন্য উন্মুক্ত হলো আরব আমিরাত…  » «   একসঙ্গে ৬ মৃত সন্তান প্রসব মৌসুমীর  » «  

নিদাহাস ট্রফি’র ফাইনালে সন্ধ্যায় মুখোমুখি বাংলাদেশ-ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক :
নিঃসন্দেহে উপমহাদেশ তো বটেই, ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী দল ভারত। এমনকি দলের মূল খেলোয়ারদের বিশ্রামে রেখেও চলতি নিদাহাস ট্রফিতে তারা যেভাবে পারফর্ম করেছে তা প্রশংসা পাওয়ারই যোগ্য। অন্যদিকে বাংলাদেশের শুরুটা হার দিয়ে হলেও স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে দুই ম্যাচে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে। বিশেষত, চাপের মধ্যে লঙ্কানদের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে জয় দলটির ইতিহাসে সেরা বলতে হবে। পুরো টুর্নামেন্টে আলাদা রকম ভাবে পারফর্ম করা এই দুই দল রোববার কলম্বোর আর. প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মুখোমুখি হচ্ছে ফাইনালে। জয়টা কি বরাবরের ফেবারিট ভারতের দিকেই যাবে, নাকি লড়াকু বাংলাদেশের সামনে তারা মাথা নত করবে?

টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে ভারত ৫ উইকেটে হেরেছিল স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার কাছে। এরপর দলটির পারফরম্যান্সের ধারাই বদলে গেছে। পরের টানা তিন ম্যাচের দুটিতে বাংলাদেশকে এবং একটিতে লঙ্কানদের হারিয়ে সবার আগে তারা নিশ্চিত করেছে ফাইনাল। কোনো ঝুঁকিতে পড়েনি।

অন্যদিকে, ভারতের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট শুরু করা বাংলাদেশ স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুই ম্যাচেই দারুণ লড়াই করেছে। প্রথম ম্যাচে মুশফিকুর রহীমের ব্যাটে ২১৫ রানের রেকর্ড লক্ষ্য তাড়া করে জিতেছে। আর ফাইনালে ওঠার চরম উত্তেজনাপূর্ণ লড়াইয়ে অনেক ঘটনাপূর্ণ শেষ ওভারে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দেয় তারা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ব্যাটে। এর আগে ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচেও জয় পেতে পারত টাইগাররা। টপ অর্ডার ব্যাটিংয়ের ব্যর্থতায় তা সম্ভব হয়নি।

টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের সবচেয়ে দুশ্চিন্তার বিষয় বোলিং। বোলাররা রান দিয়েছেন বেশি, উইকেট পেয়েছেন কম। কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সবচেয়ে খরুচে বোলার। যদিও উইকেট পাচ্ছেন। তবে আরেক পেসার রুবেল হোসেন ভারতের বিপক্ষে দুই ম্যাচেই ভাল বোলিং করেছেন। তবে চোখ কাড়ার মতো না। এছাড়া শেষ ম্যাচে নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ফেরায় দলের ব্যাটিং-বোলিং দু’দিকেই শক্তি বেড়েছে।

ভারতের টিনএজ স্পিনিং-অল রাউন্ডার ওয়াশিংটন সুন্দর ও পেস বোলিং-অল রাউন্ডার বিজয় শংকর পুরো টুর্নামেন্ট জুড়েই দারুণ বল করেছেন। বিশেষত, সুন্দর। টুর্নামেন্টের এই সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী শেষ ম্যাচে ধসিয়ে দিয়েছিলেন বাংলাদেশকে। পাওয়ার প্লেতে বেশিরভাগ সময় বল করার পরও তার ইকোনমি রেট ৫.৮৭।

ভারতের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে একেবারে খারাপ খেলেনি বাংলাদেশ। এবার ব্যাটিং অর্ডার ধসে না পড়লে এবং আগে বল করলে ভারতকে মোটামুটি কম রানে বেধে ফেলতে পারলে বাংলাদেশের সম্ভাবনা রয়েছে বেশ। হাজার হোক, টাইগাররা এখন জানে কিভাবে লক্ষ্য তাড়া করে জিততে হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
17Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!