শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
৯৯৯-এ কল: সুনামগঞ্জে মধ্যরাতে দুই নারীর প্রতি পুলিশের মানবিকতা!  » «   জাতীয় নির্বাচন : প্রিয় দলের নির্বাচনী প্রচারণায় সিলেটে শতাধিক প্রবাসী  » «   ১৯ নয়, ২১ ডিসেম্বর সিলেট আসছেন প্রধানমন্ত্রী  » «   সিলেটের গ্যালারি নৌকা নৌকা স্লোগানে মুখরিত  » «   আবারো মুখোমুখি আরিফ-কামরান  » «   সিলেটে বিনম্র শ্রদ্ধায় শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ  » «   আমি শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাবো, লড়াই আমি স্বামীর কাছ থেকে শিখেছি -ইলিয়াসপত্নী লুনা  » «   সিলেট স্টেডিয়াম অবশ্যই বাংলাদেশের অন্যতম সেরা : মাশরাফির  » «   সেনাবাহিনী নামবে ২৪ ডিসেম্বর  » «   ৩০ ডিসেম্বর নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের প্রত্যাখ্যান করবে জনগণ  » «  

সিলেটে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, শ্বশুড়-শ্বাশুড়ী আটক

কানাইঘাট প্রতিনিধি:
সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সীমান্তবর্তী লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির সোনাতনপুঞ্জি গ্রামে শনিবার স্বামীর হাতে নির্মম ভাবে খুন হয়েছেন স্ত্রী জাহানারা বেগম। এ ঘটনায় কানাইঘাট থানা পুলিশ নিহতের শ্বশুড় ও শ্বাশুড়ীকে আটক করেছে।

জানা যায়, সোনাতনপুঞ্জি গ্রামের শফিকুল হকের পুত্র ইব্রাহিম আলী উরফে ইমন (২৩) এর স্ত্রী জাহানারা বেগম (১৯) বাড়ীর পাশে একটি ছড়ায় শনিবার সকাল অনুমান ১০টার দিকে পানি আনতে যায়। এ সময় জাহানারার স্বামী ইমনের চাচাতো ভাই সিরাজ উদ্দিন (২৫) তার শ্লীতাহানীর চেষ্টা করলে স্বামী ইমন টিলার উপর অবস্থিত বাড়ী থেকে ঘটনাটি দেখতে পেয়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে সিরাজ উদ্দিনের উপর হামলার চেষ্টা করলে সে পালিয়ে যায়। এ সময় ক্ষুব্ধ হয়ে স্ত্রী জাহানারাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ডান পায়ের উরুতে কুপিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে ঘাতক স্বামী ইমন। রক্তাক্ত জাহানারার আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক জাহানারাকে মৃত ঘোষনা করেন।
হত্যাকান্ডের খবর পেয়ে থানার ওসি(তদন্ত) নুনুমিয়া হাসপাতালে ছুটে যান। এ ঘটনার সাথে সাথে কানাইঘাট থানা পুলিশ জাহানারার শ্বশুড় ও শ্বাশুড়ীকে আটক করেছেন। স্ত্রী হত্যাকারী ঘাতক স্বামীকে গ্রেপ্তার করতে এলাকায় পুলিশ অভিযান চলছে।

জানা যায় এর পুর্বে জেন্তাপুর উপজেলার সাতারখাই গ্রামের লালমিয়ার ছেলে জয়নাল আবেদীনের সাথে জাহানারার বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু সেখানে জাহানারা জয়নালের সংসার ছেড়ে ইমন ইব্রহিমকে ভালবেসে বিয়ে করে সংসার সাজায়। জাহানারা উপজেলার বড়চতুল ইউপির মালিগ্রামের মৃত খলিল আহমদের মেয়ে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায় ঘাতক ইমন ইব্রহিম এলাকার বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডে জড়িত। প্রায় ৬ মাস পুর্বে মোগলাবাজার থানার এক ডাকাতি মামলার আসামী ছিল। সে মামলা ইমন ইব্রাহিম প্রায় আড়াই মাস জেল খেটে এসেছে। বর্তমানে নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত নিহতের ভাই মানিক মিয়া বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!