মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হানাহানির অপঘাতে বিপর্যস্ত বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গন

সারওয়ার চৌধুরী: বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গন এখন হত্যা, গুম আর হানাহানির অপঘাতে বিপর্যস্ত ৷ রাজনৈতিক দলগুলো দেশের আপামর শান্তিপ্রিয় জনগনের মৌলিক অধিকার , বেচে থাকার অধিকার নিজেদের আয়ত্বে নিয়ে গেছে ! এখন দেশের পরিস্থিতি এমন যে রাজনৈতিক দল সমুহ বিশেষ করে ক্ষমতাসীন দল বা দলীয় প্রধানের মর্জির উপর নির্ভর করে দেশের কোটি কোটি মানুষের হাসি -কান্না , সুখ দুঃখ ৷ এ সমস্ত রাজনৈতিক দল আবার মুখে গরীব মেহনতী মানুষের হাসি কান্নাকে অগ্রাধিকার দেওয়ার কথা বললেও মুলত ধনী কিংবা উচ্চ শ্রেনীর স্বার্থটাই তারা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিবেচনা করে ৷

দেশ স্বাধীন হওয়ার সূবর্ণ জয়ন্তীর খুব কাছাকাছি  দাঁড়িয়ে এখনও আমরা একটা স্হিতিশীল গণতান্ত্রিক ব্যবস্হার ধারাবাহিক প্রয়োগ দেখতে পাইনি , এটা অবশ্যই দেশের উন্নয়ন এবং অগ্রগতির পথে মুল অন্তরায় ! জনগনের মতামতকে উপেক্ষা করে শক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে থাকার ফলশ্রুতিতে অপশাষণ , অপকীর্তি , দুর্নীতি , হিংসা -বিদ্বেষ ইত্যাদি বিষয়গুলো ব্যক্তি থেকে শুরু হয়ে জাতীয় পর্যায়ে শিকড় গেড়েছে ৷

রাজনৈতিক দলগুলোর স্বার্থসিদ্ধির শক্তিশালী হাতিয়ার হচ্ছে ছাত্র রাজনীতি ! কোমল মতি ছাত্র সমাজ যারা কখনও জীবন বাস্তবতার মুখোমুখি হয়নি ,  এখনও বোঝার মত সময় হয়নি যে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার আগে, স্বাবলম্বী হওয়ার আগে বর্তমান প্রচলিত রাজনীতিতে জড়িয়ে যাওয়া আত্মঘাতী — তাদেরকেই কৌশলে বিভিন্ন পদ পদবীর ” মুলা ” দিয়ে নিজেদের অবস্থানকে শক্ত রাখতে ব্যস্ত দলগুলো ! ছাত্র সমাজের দু একজন কিংবা অতি ক্ষুদ্র একটা অংশ অবশ্য এ নিয়মের বাইরে , তাদেরকে সৌভাগ্যবান বলতে হয় ! এই অতি ক্ষুদ্র অংশই ছাত্র রাজনীতিতে জড়িত হয়ে যেন ” আলাদিনের যাদুর প্রদিপ ” পেয়ে যায় ! এ ক্ষেত্রে দলগুলো বেছে নেয় মধ্যবিত্ত,নিম্ম মধ্যবিত্ত কিংবা দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের ! এই ক্ষুদ্র অংশকে রাজনৈতিক দলগুলো বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দিয়ে , রাজনৈতিক সামাজিক এবং অর্থনৈতিক ভাবে একটা শক্তিশালী অবস্থানে নিয়ে যায় ! তাই তো আমরা দেখি একজন ছাত্রনেতা যে নিজেকে চলমান ছাত্র হিসেবে পরিচয় দেয় , তারপক্ষেও সম্ভব হয় বিভিন্ন খাতে দান দক্ষিণা করা ! সম্ভব হয় লাখ লাখ কিংবা কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে সুবিশাল , বিলাস বহুল অট্রালিকা নির্মাণ করা ৷ আর এদেরকেই রাজনৈতিক দলগুলো তুলে ধরে ছাত্র রাজনীতি করে সাফল্য প্রাপ্তির সফল মডেল হিসেবে ৷

অতি সম্প্রতি আমাদের সিলেটে দুটৌ বড় রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনগুলোর গ্রুপিং কোন্দলের শিকার হয়ে প্রাণহানী ঘটেছে দুটো তাজা প্রাণের ৷ দেশের ভবিষ্যত ,  প্রাণোচ্ছাশে ভরপুর দুটৌ বাতিকে অংকুরেই নিভিয়ে দেয়া হয়েছে ! আর আমাদের ছাত্র রাজনীতিতে এরকম লাশের খেলা সব সময়ই ধারাবাহিক ৷ সবার চোখের সামনেই এ ধরনের বর্বর , অমানবিক ঘটনাগুলো ঘটে ! যারা এগুলো ঘটায় তাদেরকেও সবাই চিনে , তারপরও তারা থেকে যায় সকল প্রকারের ধরা ছোঁঁয়ার বাইরে ৷ আর এভাবেই কৃতকর্মের জন্যে তারা আতঙ্কিত কিংবা লজ্জিত না হয়ে বরং আরও উৎসাহিত হয় ৷ যখন এদের মধ্য থেকেই  যারা রাজনৈতিক ভাবে উপরের দিকে উঠে , তাদের কাছ থেকে দেশ কি প্রত্যাশা করতে পারে ?

আমাদের দেশে এখনও বেশীরভাগ পিতা-মাতা ,  অভিবাবক সচেতন নয় ! তাই সমাজে যারা সচেতন , শিক্ষিত এবং বিভিন্ন অভিবাবকদের সাথে ঘনিষ্ট আছেন তাদেরকেই এ সমস্ত অভিবাবকদের সচেতন করার দায়িত্ব নিতে হবে , বোঝাতে হবে সন্তানদের প্রতি দৃষ্টি রাখতে ৷ অভিবাবকদের পাশাপাশি তাদের সন্তানদেরকেও রাজনীতির পরিবর্তে নিজের ক্যারিয়ারের প্রতি মনযোগী হতে উৎসাহ দিতে হবে ৷ নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার পর সে যদি রাজনীতি করতে ইচ্ছুক হয় তখন সে রাজনীতি করবে ৷ আর এভাবেই ব্যাক্তিগত প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি পরিবার , সমাজ তথা দেশও উপকৃত হবে ! নতুবা রাজনৈতিক দলগুলোর দূষিত আর বিষাক্ত স্বার্থসিদ্ধির ভাইরাসে আমাদের  আশা আকাংখা , দেশের ভবিষ্যত  আমাদের ছাত্র সমাজ ডাষ্টবিনের আবর্জনায় পরিণত হবে , আর এ আবর্জনার বিষাক্ত ছোয়ায় দেশ ও জাতি দিন দিন সমাধানহীন সমস্যা থেকে সমস্যার অতই সাগরে হাবুডুবু খাবে ৷

লেখকঃ সারওয়ার চৌধুরী,
আমেরিকা প্রবাসী।

(সুরমানিউজ এর পাঠককলামে প্রকাশিত সব লেখা পাঠক কিংবা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় সুরমানিউজ বহন করবে না। সুরমানিউজ এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।)

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email
Print this page
Print

সর্বশেষ সংবাদ

error: Content is protected !!