বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
সিলেটে দেশের ৩য় বৃহত্তম চিড়িয়াখানা, চালু হচ্ছে সীমিত জনবল নিয়ে  » «   ছাত্রলীগকর্মী তানিম হত্যা : আসামী ডায়মন্ড ও রুহেল ৫ দিনের রিমান্ডে  » «   জামেয়া গহরপুর মাদ্রাসার ৬১ তম বার্ষিক মাহফিল আজ  » «   সিলেটে অস্ত্রসহ হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার  » «   কার্ডিফের মতো সিলেট গড়তে চাই : মেয়র আরিফ  » «   সুনামগঞ্জে বোরো আবাদ : কৃষকদের চরম হতাশা, লক্ষ্যমাত্রা সোয়া ২ লাখ হেক্টর জমি  » «   সিলেটে পাথর কোয়ারীতে অভিযান : ১৫টি লিস্টার মেশিন ধ্বংস  » «   সিলেটে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল  » «   সিলেটে ওসমানী স্মৃতি পরিষদের শীতবস্ত্র বিতরণ  » «   ওসমানীনগরে ইলিয়াস আলীর জন্য বিএনপি নেতা ফারুকের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ  » «  

ঐশ্বরিয়াকে মা দাবি, কে এই যুবক?

বিনোদন ডেস্ক:
বলিউড তারকা ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চনকে নিজের মা দাবি করেছেন সঙ্গীত কুমার নামের এক যুবক। তিনি বলেন, ‘১৯৮৮ সালে আইভিএফ (টেস্ট টিউব বেবি) পদ্ধতিতে লন্ডনে জন্ম হয়েছে আমার। আর আমার মায়ের নাম ঐশ্বরিয়া রায়।’
২৯ বছর বয়সী এই যুবকের মন্তব্যকে ঘিরে আলোচনা তৈরি হয়েছে বলিউড পাড়ায়। বচ্চন পরিবারের পুত্রবধূ ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চনের একমাত্র কন্যা আরাধ্যা। এই বিষয়টি সবাই জানেন। তবে কে এই যুবক, আর কেন ঐশ্বরিয়াকে নিজের মা দাবি করছেন?
সঙ্গীত কুমার দাবি করেন, ১৯৮৮ সালে লন্ডনে জন্মের পর তাকে কোদাভরমে নিয়ে আসা হয়। তিন বছর বয়স পর্যন্ত দিদিমা বৃন্দাকৃষ্ণরাজ রায়ের কাছে বড় হন তিনি। ২০১৭ সালের মার্চ মাসে দাদু কৃষ্ণরাজ রায়ের মৃত্যু হয়। তার কাকার নাম আদিত্য রায়।
কয়েকদিন আগে সংসদ সদস্য অমর সিং দাবি করেছিলেন অমিতাভ বচ্চন ও জয়া বচ্চন আলাদা বসবাস করেন। এবার সঙ্গীত কুমার দাবি করেছেন, ২০০৭ সালে অভিষেক বচ্চনের সঙ্গে বিয়ে হলেও ঐশ্বরিয়া তার সঙ্গে থাকেন না।
সঙ্গীত কুমার বলেন, আমি চাই আমার মা আমার সঙ্গে থাকুন। ২৭ বছর হয়ে গেল, আমি আমার পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন। তবে ঐশ্বরিয়া রায় যে সঙ্গীত কুমারের মা তার কোনো জোরালো প্রমাণ হাজির করতে পারেননি এই যুবক।
এর আগে তামিল তারকা ধানুশকে নিয়ে এমন এক কাণ্ড হয়েছিল। এক দম্পতি ধানুশকে তাদের সন্তান দাবি করেছিলেন। সেই বিষয়টি নিয়েও আলোচনা হয়েছিল শোবিজপাড়ায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

সর্বশেষ সংবাদ