বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ
জামেয়া গহরপুর মাদ্রাসার ৬১ তম বার্ষিক মাহফিল আজ  » «   সিলেটে অস্ত্রসহ হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার  » «   কার্ডিফের মতো সিলেট গড়তে চাই : মেয়র আরিফ  » «   সুনামগঞ্জে বোরো আবাদ : কৃষকদের চরম হতাশা, লক্ষ্যমাত্রা সোয়া ২ লাখ হেক্টর জমি  » «   সিলেটে পাথর কোয়ারীতে অভিযান : ১৫টি লিস্টার মেশিন ধ্বংস  » «   সিলেটে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল  » «   সিলেটে ওসমানী স্মৃতি পরিষদের শীতবস্ত্র বিতরণ  » «   ওসমানীনগরে ইলিয়াস আলীর জন্য বিএনপি নেতা ফারুকের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ  » «   বিশ্বনাথে বিএনপির মিছিলে পুলিশি বাঁধা : পার্টি অফিসে প্রতিবাদ সভা  » «   হবিগঞ্জে মাদ্রাসাছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «  

কেনো এই ধান্ধাবাজি?

এস এইচ সৈকত:
আমাদের প্রানের শহর সিলেটে প্রথমবারের মত বিপিএল এর উদ্বোধনী ম্যাচসহ বেশ কয়েকটি খেলার আসর করে দেওয়ায় প্রথমেই ধন্যবাদ জানাই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)কে। কোন ধরনের অপৃতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য দেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
কিন্তু দুইদিন থেকে কয়েকটি প্রশ্ন না করে পারছি না। ক্রিকেট প্রেমি অধিকাংশ দর্শকদের টিকেট কিনতে হয়েছে কালোবাজারি চক্রের হাত থেকে। কিন্তু কেনো? কর্তৃপক্ষের কি ধরনের নজরদারি ছিলো এইদিকে? কালোবাজারিদের হাতে কিভাবে গেলো এতো টিকেট? আর যে কারনে প্রতি টিকেট ৩-৫গুন বেশি দামে কিনতে হয়েছে ক্রিকেট প্রেমি দর্শকদের। এর দায়কি আয়োজকরা সরাতে পারেন?
বিসিবি’র মতে ঢিল ছুড়া যায় এমন (বাশি, পানি, ব্যাগ, হ্যাড ফোন, চকলেট, চুইংগাম, পটেটো চিপস) নিয়ে স্টেডিয়ামে ঢুকা নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বিসিবি’কে সাধুবাদ জানাই এতো নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য। কিন্তু খাদ্যসামগ্রী দিয়ে ঢিল ছুড়া যায় এটা এই প্রথম শুনলাম।
আচ্ছা ধরে নিলাম এইসব দিয়ে ঢিল ছুড়া যায়, তবে কেনো বিসিবি’র পরিচয়পত্র গলায় লাগিয়ে ভিতরে এই সব কিছু বিক্রি হচ্ছে? বাইরে যে ২লিটার পানির মূল্য ৩০ টাকা সেই পানি ভেতরে ১৫০ টাকা, ১ লিটার ৫০ টাকা, ১০টাকা মূল্যের চিপস ভেতরে ৩০ টাকা, ১৫ টাকা মূল্যের আইসক্রিম ৩০ টাকা, ৪০ টাকার আইসক্রিম ১০০ টাকা, ১১০ টাকা মূল্যের কোল্ড ড্রিঙ্ক ভিতরে ৩০০-৩৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কেন এই ধান্ধাবাজি?
ভেতরে যদি সবকিছুই পাওয়া যায় তাহলে বাইরের গুলার দোষ কি? ভিতর থেকে ক্রয় করা জিনিস দিয়ে কি ঢিল মারা যায় না? কেনো বিসিবি’র লোকরাই টিকেট কালোবাজারি হিসেবে পুলিশের হতে ধরা পড়ে?
সিলেটের ক্রিকেট বললে এখনো চোখের সামনে ভেসে ওঠে রাজিন, অলক, তাপসের নাম। সিলেটের নবীন ক্রিকেটারদের সামনে তাঁরাই আইকন। এই ত্রয়ীর মধ্যে তাপস যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমিয়েছেন। বাকি দুজনের মধ্যে অলক এবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসে খেললেও কোথাও নেই রাজিন সালেহ। বাংলাদেশ দলের সাবেক এই অধিনায়ককে বিপিএল দেখার আমন্ত্রণও জানানোর প্রয়োজন পর্যন্ত মনে করেনি স্থানীয় ক্রীড়া সংস্থার কর্তাব্যক্তিরা। শুধু সাবেক অধিনায়ক রাজিনই নন, বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়ের নায়ক এনামুল হক জুনিয়রকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বিপিএল দেখতে।
সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরীর বরাত দিয়ে একটি বক্তব্যে জানান, ‘শফিকুর রহমান চৌধুরী তাঁর বক্তব্যকালীন সময়ে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত নেতাকর্মীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বলেন আমাদের দল ও অঙ্গসংগঠনের অনেক নেতাকর্মী বিপিএল’র টিকেট পাননি। তাই আমি বিপিএল’র উদ্বোধনী আয়োজন দেখতে না যাওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। এসময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাকে সমর্থন দেন। আমরাও সমর্থন দিয়েছি।’
এদিকে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, কাউন্সিলররা ও সিলেট জেলা জাতীয় পার্টি সদস্য সচিব উছমান আলী চেয়ারম্যান বলেন, দুর্নীতি কারণে সিলেটে ক্রিকেট প্রেমীরা টিকেট না পাওয়ায় সিলেট বিপিএলকে বয়কট করছি।
লেখক:
এস এইচ সৈকত
সাংবাদিক

(সুরমানিউজ এর পাঠককলামে প্রকাশিত সব লেখা পাঠক কিংবা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় সুরমানিউজ বহন করবে না। সুরমানিউজ এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।)

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Email this to someonePrint this page

সর্বশেষ সংবাদ